সংবাদ শিরোনাম
 প্রথমে বিশ্ববিদ্যালয় সবার শেষে প্রাথমিক বিদ্যালয় খুলবে | করোনা টেস্ট করাতে গিয়ে চার বছর আগে হারিয়ে যাওয়া ছেলেকে খুঁজে পেল মা! | পাকিস্তানকে মদিনা শরিফের আদর্শ অনুসরণে মহৎ রাষ্ট্র বানাবো: ইমরান খান | মোদির হাতেই রামমন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন, আমন্ত্রিত সব মুখ্যমন্ত্রী | জুমার নামাজের মধ্যদিয়ে মসজিদ হিসেবে খুলছে ‘আয়া সোফিয়া’ | জায়নামাজ চাইলেন সাবরিনা, সঙ্গে কিছু বড় কাপড় | টিউশনের নাশতা খেয়েই দিন পার করা মেয়েটি এখন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক | তুরস্কে আজান দেয়া বন্ধ করতে পারবে না কেউ: এরদোয়ান | রিমান্ডে স্বামী-স্ত্রীর কাদা ছোড়াছুড়ি | পরিবারের পছন্দের মেয়ে আর প্রেমিকা, দুজনকেই একসঙ্গে বিয়ে করলেন যুবক |
  • আজ ২২শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ফোন এলেই গাছে চড়তেন ভারতীয় আম্পায়ার!

Avatar | হাবিব, ডেস্ক এডিটর ৩:৪১ অপরাহ্ণ | জুলাই ১৬, ২০২০ আন্তর্জাতিক, ক্রিকেট, খেলাধুলা

মোবাইল নেটওয়ার্ক সমস্যা সমাধান করে বীরের মর্যাদা পাচ্ছেন আইসিসির আন্তর্জাতিক প্যানেলের ভারতীয় আম্পায়ার অনিল চৌধুরী।

ভারতের উত্তরপ্রদেশের ড্যাংরোল গ্রামে দীর্ঘ দিন ধরে মোবাইল নেটওয়ার্ক খুবই দুর্বল ছিল। যে কারণে লকডাউনে গ্রামের বাড়িতে এসে বিপদে পড়েন এই আম্পায়ার। ফোন এলেই গাছে চড়তে হতো তাকে!

ভারতের সোশ্যাল মিডিয়ায় অনিল চৌধুরীর এই গাছে চড়ার দৃশ্য রীতিমতো ভাইরাল হয়ে পড়ে। ছবিতে দেখা যায়, গাছে চড়ে ফোনে কথা বলেছেন অনিল।

ভাইরাল সেই ছবি একটি টেলিকম সংস্থার নজরে আসে। সংস্থাটি অনিলের গ্রামে একটা নেটওয়ার্ক টাওয়ার বসিয়েছে ইতিমধ্যে।

আর ড্যাংরোলে গ্রামের নেটওয়ার্ক সমস্যাও মিটেছে। এখন করোনা পরিস্থিতিতে সশরীরে জরুরি সভায় উপস্থিত থাকতে দিল্লির ট্রেন ধরতে হয় না অনিল চৌধুরীকে।

সবচেয়ে বড় কথা গ্রামবাসীরও ফোনে কথা বলতে গাছের ডালে চড়তে হচ্ছে না।

সংবাদ মাধ্যম এবিপি আনন্দকে অনিল চৌধুরী বলেছেন, ‘ওই টাওয়ার বসানোয় আমরা খুবই খুশি। আমার গ্রামের বাসিন্দারা এখন নিবিঘ্নে ফোনে কথা বলতে পারবে। এই গ্রামে একজন অধ্যাপক থাকেন। যিনি এখন করোনাকালে অনলাইন ক্লাস নিতে পারছেন। ছাত্ররাও পড়াশোনা চালিয়ে নিতে পারছে। এখন অনলাইন ক্লাসে যোগ দিয়েছে। আমার একার নয় এটা যে গামবাসীর কত বড় উপকার হলো তা ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না।’

করোনা সংক্রমণ দেশে ছড়িয়ে পড়ার আগে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার একদিনের সিরিজে অনিল চৌধুরীর আম্পায়ারিংয়ের দায়িত্ব সামলানোর কথা ছিল। সেই সিরিজ বাতিল হয়ে যায়। এই অবসরে অনিল উত্তরপ্রদেশে নিজের গ্রাম ড্যাংরোলে গিয়েছিলেন অনিল।