• আজ ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বারবার বন্যার কারণ ‘নতজানু পররাষ্ট্রনীতি’

| নিউজ রুম এডিটর ৬:৪৪ অপরাহ্ণ | জুলাই ২৮, ২০২০ রাজনীতি

ভারত অভিন্ন নদীগুলোর সব বাঁধ ও ব্যারেজের গেট খুলে দেওয়ায় বাংলাদেশের ব্রহ্মপুত্র, যমুনা, মেঘনা, মহানন্দ, পদ্মা, তিস্তা ও ধরলা নদীর অববাহিকায় ৩৪টি জেলা প্লাবিত হয়েছে।

সরকারের নতজানু পররাষ্ট্রনীতির কারণে নদী অববাহিকার মানুষ সর্বস্বান্ত হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সোমবার (২৭ জুলাই) ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন তিনি।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, একদিকে করোনা মোকাবিলায় সরকারের চরম ব্যর্থতা মানুষের জীবন ও জীবিকাকে বিপন্ন। অন্যদিকে উজানে ভারত থেকে বন্যার পানি নেমে আসায় মৃত্যু ও ফসলহানি দেশের মানুষকে সীমাহীন কষ্ট ও অর্থনৈতিক অসহায়ত্বের মধ্যে ফেলেছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, কয়েকটি জেলায় এক মাসের মধ্যে ২-৩বার বন্যার পানি উজান থেকে এসে বাড়ি-ঘর, ফসলের ক্ষেত ভাসিয়ে নিয়ে গেছে।

তিনি বলেন, ভারতের সঙ্গে অভিন্ন নদী ১৫৪টি। একমাত্র পদ্মার ফারাক্কা বাঁধ ব্যতীত কোনটারই কোনো পানি বণ্টন চুক্তি ভারতের অনীহার কারণে সম্পূর্ণ হয়নি।

তিনি আরও বলেন, তিস্তার চুক্তির কথা ফলাও এই সরকার প্রচার করলেও গত এক দশকে সে চুক্তিই করতে সক্ষম হয়নি। অথচ একের পর এক ট্রানজিট, বন্দর ব্যবহার, বিদ্যুৎ ক্রয়সহ অসংখ্য অসম চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।

নতজানু পররাষ্ট্রনীতি কারণে প্রায় প্রতি বছর দেশের নদী অববাহিকায় বসবাসকারী মানুষেরা এই বন্যায় আক্রান্ত হয়ে সর্বস্বান্ত হচ্ছে।

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন পিপলস নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - feature.peoples@gmail.com