• আজ ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শ্রীনগরে ভন্ড ফকিরের কাছে গিয়ে সম্ভ্রম হারালো নারী

| ফারুখ খাঁন, শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) ১১:৩০ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ২১, ২০২১ সারাদেশ

শ্রীনগরে ভন্ড ফকিরের কাছে ঝাড়ফুক করাতে এসে সম্ভ্রম হারালো এক নারী (৩৫)। অভিযুক্ত ফকিরের নাম শ্রী পচু সরকার। পচু সরকার উপজেলার পাটাভোগ ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ছনবাড়ির এলাকার মৃত দীনেশ মুক্তারের ছেলে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার ভন্ড ফকির পচুর বিরুদ্ধে শ্রীনগর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ভূক্তভোগী।

স্থানীয়রা জানায়, কয়েকদিন আগে এক নারীকে রাস্তায় পচু ফকিরকে চরথাপ্পর দিতে দেখা যায়। এর কারণ হিসেবে ওই নারী জানায় কয়েক মাস আগে স্বামীর সংসারে ফিরে যেতে পচু ফকিরের কাছে গিয়ে নারীর সম্ভ্রম হারানোর বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হয়। ঘটনার ধামাচাপা দিতে পচু ফকিরের ছেলে দিপ্ত সরকার এলাকায় প্রভাব খাটানোর চেষ্টা করে। এ সময় ভন্ড ফকিরকে আইনের আওতায় আনার দাবী করেন এলাকাবাসী।

এক সন্তানের জননী ভূক্তভোগী ওই নারী বলেন, গত ৪/৫ মাস আগে স্বামীর সংসারের ফিরে যাওয়ার জন্য পচু ফকিরের বাড়ি যাই। পচু আমার দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে ঝাড়ফুকের নামে আমার গায়ের জামা কাপড় খুলে শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয়। তাকে বাঁধা দেওয়া চেষ্টা করলে ডরভয় দেখিয়ে আমার সাথে শারীরিক সম্পর্ক করে পচু।

গত কয়েক মাসে ঝাড়ফুকের নামে পচু ফকির তার আসন ঘরে আমার সাথে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করে। পচু ফকিরের ছেলে দিপ্ত সরকার ও তার লোকজন ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে একটি সাদা স্ট্যাম্পে আমার স্বাক্ষর নেওয়া চেষ্টা করে। আমি কোন স্বাক্ষর দেইনি। পচু ফকিরের দ্বারা আরো নারীর সর্বনাশ হয়েছে বলে তিনি দাবী করেন। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করি।

পচু সরকারের কাছে এব্যাপারে জানতে তার বাড়িতে গিয়ে কোন দেখা মিলেনি। পচুর ছেলে দিপ্ত সরকারের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এসব অভিযোগ সব মিথ্যা ও বানোয়াট। আমার বাবা এমন মানুষ না। এর বেশী কিছু বলতে রাজি হননি তিনি।

এব্যাপারে শ্রীনগর থানার ওসি (তদন্ত) মো. কামরুজ্জামান জানান, এঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে। অভিযুক্ত আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পিএন/জেটএস


করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন পিপলস নিউজ‘এ । আজই পাঠিয়ে দিন feature.peoples@gmail.com মেইলে