• আজ ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

আজ কুলিয়ারচরের কৃতিসন্তান সাবেক ছাত্র নেতা ইকবাল হোসেন ভূঞার জন্মদিন

আজ শুক্রবার ১লা অক্টোবর ২০২১ ইং। ১৯৭০ সালের এই দিনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সূর্যসেন হলের সাবেক সভাপতি, ছাত্রলীগ রাজনীতির ইতিহাসে সৎ, নির্লোভ, পরোপকারী, ন্যায়পরায়ন ও অন্যায়ের বিরুদ্ধে আপোষহীন, ছাত্রলীগের দুর্ষময়ে ৯০- দশকে রাজপথ কাঁপানো সৈরচার বিরোধী আন্দোলনের দুর্দন্ত সৈনিক মেধাবী ছাত্র ও আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক এডভোকেট ইকবাল হোসেন ভূঞা কিশোরগঞ্জ জেলার কুলিয়ারচর উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নের ফরিদপুর গ্রামে এক মুসলিম সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।

বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক এডভোকেট ইকবাল হোসেন ভূঞার পিতা মরহুম কামরুজ্জামান ভূঞা ১৯৯৬ সালে মৃত্যুবরণ করার আগ পর্যন্ত কুলিয়ারচর উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ছিলেন। তার আপন মামা মোঃ মেজবাহউদ্দিন আহম্মেদ কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর পৌরসভার আওয়ামী লীগ থেকে ৪ বার নির্বাচিত মেয়র।

আপন মামাতো ভাই সারোয়ার আলম বাজিতপুর উপজেলা থেকে আওয়ামী লীগের ব্যানারে নির্বাচিত ২ বারের উপজেলা চেয়ারম্যান ও তার আপন খালাতো ভাই রফিকল্লাহ ছিলেন কুলিয়ারচর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি। বলতে গেলে এক কথায় ইকবাল হোসেন ভূঁঞার জন্ম আওয়ামী পরিবারে। তার বাড়ির নাম বহন করে ফরিদপুরের মাটিতে মাথা উচুঁ করে দাড়িয়ে আছে কুলিয়ারচর উপজেলার শ্রেষ্ট বিদ্যাপীঠ ফরিদপুর ইউনিয়ন আব্দুল হামিদ ভূঞা উচ্চ বিদ্যালয়।

এলাকাবাসী বলেন, তার পরিবারের অনেকেই জীবন কাটিয়ে গেছেন আওয়ামী লীগের কল্যাণে। তার পারিবারিক রাজনৈতিক ইতিহাস লিখতে গেলে কত ইতিহাস-ই না মনে পড়ে।

আজকের এই দিনে আওয়ামী পরিবারে জন্মগ্রহণ করে হাটি হাটি পা পা করে বেড়ে উঠে ইকবাল হোসেন ভূঞা। জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের সৈনিক তুখোর এই ছাত্রলীগ নেতা বাবা কামরুজ্জামান ভূঞা ও তার মামাদের আদর্শে লালিত।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের আলোচিত নেতা ইকবাল হোসেন ভূঞা যখন ফরিদপুর ইউনিয়নের ৩৮ নং বাংলাবাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র তখন থেকেই তার চোখে-মুখে স্পষ্টভাবে ভেসে উঠে পারিবারিক রাজনীতি আওয়ামী লীগের চিত্র।

বাংলাবাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে প্রাথমিক শিক্ষা শেষ করে তিনি ফরিদপুর ইউনিয়ন আব্দুল হামিদ ভূঞা উচ্চ বিদ্যালয়ে ভর্তি হয়। কিশোর বয়সেই তিনি ছাত্র রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়ে আওয়ামী লীগের দুর্দিনে ছাত্রলীগের বিভিন্ন মিছিল-মিটিংয়ে যোগদান করে নেতৃত্ব দেন এই কিশোর ইকবাল হোসেন ভূঞা। পরবর্তীতে তিনি উপজেলার সালুয়া ইউনিয়নের বীরকাশিমনগর ফেদাউল্লাহ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাশ করে ভর্তি হন কটিয়াদী কলেজে।

কটিয়াদি কলেজে পড়াশোনা কালে ১৯৮৭ সালে তিনি নিজে আহ্বায়ক হয়ে ফরিদপুর ইউনিয়নে ছাত্রলীগ গঠন করে ছাত্রলীগকে পুনরুজ্জীবিত করেন। কটিয়াদী কলেজে পড়াশোনা শেষ করে ১৯৮৯ সালে ভর্তি হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। সেখানে পড়াশোনা করার সময় ১৯৯৪ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সুর্যসেন হলের সভাপতি নির্বাচিত হন। যা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া ছাত্র-ছাত্রীদের মুখে এখনও শোনা যায়। সেসময় ছাত্রলীগের একজন সৎ ও নিষ্ঠাবান নেতা হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়সহ সারা বাংলাদেশে ছড়িয়ে পড়ে তার নাম।

পরবর্তীতে তিনি ১৯৯৮ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নির্বাচিত হন। ওই কমিটিতে সততা ও দক্ষতার সাথে দলীয় কর্মকাণ্ড পরিচালনা করায় ২০০২ সালে তিনি ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি নির্বাচিত হন। পরে তিনি ২০১২ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক নির্বাচিত হন। এ ছাড়াও তিনি শহীদ আইভি রহমান পরিষদসহ আরও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির দায়িত্ব পালন করেছেন।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের জীবন্ত কিংবদন্তি এই ছাত্র নেতার রাজনীতির বাইরেও রয়েছে সামাজিক অনেক কর্মকাণ্ড। তিনি ফরিদপুর ইউনিয়ন আব্দুল হামিদ ভূঞা উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় একটানা ৭ বারের নির্বাচিত সফল সভাপতি। তার সঠিক পরিচালনায় উক্ত বিদ্যালয় বর্তমানে উপজেলার শ্রেষ্ট বিদ্যাপীঠে পরিনত হয়েছে। যার ফলে তিনি তার নিজ এলাকার মানুষের কাছে সুর্যসন্তান হিসেবে পরিচিত।
তার এলাকায় এমন কথাও শোনা যায়, ছাত্র রাজনীতি করে যেখানে অনেকেই বাড়ি-গাড়ী এবং কোটি কোটি টাকা উপার্জন করে সেখানে তিনি এখনও বাপ-দাদার যুগে তৈরী করা সেই পুরনো বাড়িটিতেই বসবাস করেন।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের দুর্ষসময়ের সাহসী সৈনিক ইকবাল হোসেন ভূঞা বর্তমানে বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের একজন স্বনামধন্য আইনজীবী। আইন পেশা হইতে উপার্জিত টাকার বড় একটি অংশ যে মানুষটি এলাকার অসহায় মানুষের কল্যাণে ব্যয় করে এ মানুষটির নামই ইকবাল হোসেন ভূঞা। আজ ১লা অক্টোবর তার জন্মদিন। দিনটি উপলক্ষে আমাদের পিপলস নিউজ ২৪ ডটকম এর পক্ষ থেকে এডভোকেট ইকবাল হোসেন ভূঞাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। আমরা তার রাজনৈতিক ও আইন পেশার আরও সফলতা কামনা করছি।

পিএন/জেটএস


করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন পিপলস নিউজ‘এ । আজই পাঠিয়ে দিন feature.peoples@gmail.com মেইলে