• আজ ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শ্রীনগরে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হলেন যারা

| ফারুখ খাঁন, শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) ১০:১৯ অপরাহ্ণ | অক্টোবর ২৩, ২০২১ সারাদেশ

দ্বিতীয় ধাপে আগামী ১১ নভেম্বর মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার ১৪টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এর আগে ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে ১৪টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার লক্ষ্যে মোট ৬২টি মনোয়নপত্র জমা পড়ে সংশ্লিষ্ট রিটানিং অফিসার কার্যালয়ে। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীর বিপক্ষে গিয়ে অনেকেই বিদ্রোহী হয়ে আসন্ন নির্বাচনে অংশগ্রহন করছেন।

জানা যায়, উপজেলার প্রায় ১১টি ইউনিয়ন পরিষদে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীদের বিপক্ষে বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থীরাও আছেন শক্ত অবস্থানে। বিদ্রোহীরা নির্বাচনে ভোটে জয়লাভের লক্ষ্যে নিজ নিজ এলাকায় কর্মী সমর্থকদের নিয়ে নির্বাচনী মাঠে থাকার প্রস্তুতি নিয়েছেন।

সূত্রমতে জানা যায়, হাঁসাড়া ইউনিয়নে গত বারের আওয়ামী লীগের মনোনীত চেয়ারম্যার প্রার্থী ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আহসান হাবীব এবারও তিনি নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করছেন। তার প্রতিপক্ষ বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা মো. সোলায়মান খান। গেল বছর তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে এখানে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ষোলঘরে আওয়ামী লীগের মনোনীত বর্তমান চেয়ারম্যান আলহাজ মো. আজিজুল ইসলামের বিপক্ষে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আওয়ামী লীগ নেতা মো. মোয়াজ্জেম হোসেন সেন্টু। শ্যামসিদ্ধিতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম মামুনকে দল পুনরায় প্রার্থী মনোনীত করেন। এই ইউনিয়নে বিদ্রোহী হিসেবে শক্ত অবস্থানে আছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জিএস নাজির। বাঘড়ায় দুই বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান নুরুল ইসলামকে এবারও নৌকা প্রতীক দেওয়া হয়েছে।

এখানে তরুণ বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আবু আল নাসের তানজিল। ভাগ্যকুলে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীর কাজী মনোয়ার হোসেন শাহাদাতের বিপরীতে বিদ্রোহী হয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান একুল খান। রাঢ়ীখালে গত বারের আওয়ামী লীগের মনোনীত বিজয়ী চেয়ারম্যান আব্দুল বারেক খার বারীকে পুনরায় নৌকা দেওয়া হয়েছে। এখানে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ হারুন অর রশিদ।

কোলাপাড়ায় গেল নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে বিজয়ী চেয়ারম্যান হাজী নেছারউল্লাহ সুজনকে এবারও দল মনোনীত করেন। এখানে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য রফিকুল ইসলাম বাবু ও ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান জনেট। পাটাভোগে নৌকার প্রার্থী উপজেলা স্বে”ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক হামিদুল্লাহ খান মুনের বিপক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বিদ্রোহী প্রার্থী মুন্সীগঞ্জ জেলা শ্রমিক লীগের সহ-সভাপতি হাসেন শেখ (খোকন)। আটপাড়ায় উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রকিবুল ইসলাম মাসুদকে প্রথম বারের মত দল মনোনীত করেন।

এখানে নৌকার বিপক্ষে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মাঠে আছেন আওয়ামী লীগ নেতা (দর্জি বাড়ির ফ্যাশনের কর্ণধার) ফজলুর রহমান। তন্তরে গত বারের নৌকার বিজয়ী চেয়ারম্যান মো. জাকির হোসেনকে এবারও দলীয়ভাবে মনোনীত করা হয়েছে। এখানে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনী মাঠে আছেন সাবেক চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আ’লীগের সাবেক সভাপতি আলী আকবর। কুকুটিয়ায় ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আক্তার হোসেন মিন্টুকে প্রথম বারের মত নৌকা প্রতীক দেওয়া হয়। এই ইউনিয়নটিতে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনী মাঠে থাকছেন ইউনিয়ন আ’লীগের সহ-সভাপতি ও গত বারের স্বতন্ত্র থেকে নির্বাচিত বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান হাজী মো. বাবুল হোসেন বাবু।

অপরদিকে বীরতারা, বাড়ৈখালী ও শ্রীনগর সদর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থীর কোন অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি। আসন্ন ১১ নভেম্বর ইউপি নির্বাচনে উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর বিপক্ষে বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) ও ইসলামী আন্দোলনের চেয়ারম্যান প্রার্থীরাই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে ১৪টি ইউনিয়নের মোট ১২৬টি সাধারণ ওয়ার্ডে মেম্বার পদপ্রার্থীদের মনোনয়নপত্র জমা পড়ে ৪৩৯টি। সংরক্ষিত ওয়ার্ডের জন্য মহিলা ইউপি সদস্য পদে মনোনয়নপত্র জমা পড়ে ১২৬টি।

গত ২১ অক্টোবর বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলায় সংশ্লিষ্ট রিটানিং অফিসার কার্যালয়ে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাইয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৩ জন, ওয়ার্ড সদস্য পদে ৯ জন ও মহিলা সদস্য পদে ১ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়ার তথ্য পাওয়া যায়। উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, শ্রীনগর উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নে মোট ভোটার প্রায় ২ লাখ ৫১ হাজার ৭৪৪ জন।

এর মধ্যে নারী ভোটার প্রায় ১ লাখ ৩১ হাজার ৩৪৩ জন ও পুরুষ ভোটার প্রায় ১ লাখ ২০ হাজার ৪০১ জন। আগামী ২৭ অক্টোবর প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেওয়ার মধ্যে দিয়ে শ্রীনগরের প্রতিটি ইউনিয়নের নির্বাচন জমে উঠবে। আগামী ১১ নভেম্বর বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে ভোটাররা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের মাধ্যমে পছন্দের জনপ্রতিনিধিদের নির্বাচিত করবেন। এমনটাই জানান সাধারণ ভোটাররা।


করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন পিপলস নিউজ‘এ । আজই পাঠিয়ে দিন feature.peoples@gmail.com মেইলে