• আজ ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কুলিয়ারচরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মারামারি: দুই নারীসহ ৩ জন আহত

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে জমিসংক্রান্ত বিষয় নিয়ে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় দুই পক্ষের দুই নারী সহ ৩ জন আহত হয়েছে। আহতরা হলেন, কুলসুম (৩২), লতিফা বেগম (৫৫) ও মোঃ সাদ্দাম হোসেন (২৮)। কুলসুম মোঃ রাজু মিয়ার স্ত্রী। অপর পক্ষের মোঃ হাদিস মিয়ার স্ত্রী লতিফা বেগম (৫৫) ও ছেলে মোঃ সাদ্দাম হোসেন (২৮)। আহত ৩ জনই কুলিয়ারচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

গত শুক্রবার (২২ অক্টোবর) বিকাল সাড়ে ৫ টার দিকে উপজেলার ছয়সূতী ইউনিয়নের বড় ছয়সূতী আরব আলী খান চকবাজারের উত্তর পাশে পুকুর পাড়ের রাস্তায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনায় দুই পক্ষই কুলিয়ারচর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

ঘটনা প্রসঙ্গে আহত নারী কুলসুম ও তার স্বামী মোঃ রাজু মিয়া বলেন, ঘটনার দিন ও সময়ে আমার স্ত্রী কুলসুম আমাদের বাড়ি থেকে পার্শবর্তী তার বাবার বাড়িতে যাওয়ার পথে আমাদের বাড়ির দক্ষিণ পাশে পুকুর পাড় রাস্তায় যাওয়া মাত্রই প্রতিক্ষের মোঃ সাদেকুর রহমান, মোঃ হাদিস মিয়া ও তার ছেলে সাদ্দাম হোসেন সহ আরো কয়েকজন মিলে তাকে লোহার রড দিয়ে পিটাতে থাকে। পরে তার ডাক চিৎকার শুনে আমরা সহ এলাকাবাসী তাকে হামলাকারীদের হাত থেকে উদ্ধার করে কুলিয়ারচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করি। তিনি জানান, তার স্ত্রী কুলসুমের বাম পা ভেঙ্গে গেছে। তিনি আরো বলেন, মোঃ হাদিস গংদের সাথে পূর্ব থেকেই জমিসংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল এবং আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। তাছাড়াও আমাদের নিরাপত্তার জন্য থানায় সাধারণ ডায়েরি করা আছে।
এ ব্যাপারে মোঃ হাদিস মিয়া বলেন, আমার প্রতিবেশি মোঃ সিরাজ মিয়া ও তার ছেলে মোঃ রাজু মিয়া দীর্ঘদিন যাবৎ আমার সাফ কাউলামূলে কেনা জমি জোরপূর্বক দখল করার পায়তারা করে আসছে। আর এরই ধারাবাহিকতায় ঘটনার দিন ও সময়ে জমি দখল করতে যাওয়ার সময় আমরা বাধা দিতে গেলে তারা আমার স্ত্রী লতিফা বেগম ও ছেলে মোঃ সাদ্দাম হোসেনকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে আহত ২ জনকে স্থানীয়দের সহযোগিতায় উদ্ধার করে কুলিয়ারচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করি। তিনি জানান, তার স্ত্রীর মুখের দাঁত ভেঙে দিয়েছে।

এ ব্যাপারে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন বলেও জানান তিনি।
স্থানীয়রা জানায়, তাদের দু’পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন যাবৎ জমিসংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় একজন সালিশিয়ান বলেন, বিরোধীয় জমির কাগজপত্র নিয়ে ৪/৫ মাস আগে এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গদের নিয়ে একটি সালিশ বসেছিল বিরোধটি মিমাংসার লক্ষ্যে কিন্তু সালিশে দীর্ঘ সময় আলোচনার পর মোঃ হাদিস মিয়ার পক্ষে প্রয়োজনীয় সঠিক কাগজপত্র দেখাতে না পাড়ায় বিজ্ঞ সালিশিয়ানগন জমির প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংগ্রহ করে আবার বসার জন্য মোঃ হাদিস মিয়া গংদের ২ মাসের সময় দেয়। কিন্ত পরে তারা প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংগ্রহ করেছে কি না তা আজও অজানায় রয়ে গেছে।

উভয় পক্ষের অভিযোগ তদন্তের দায়িত্বে থাকা কুলিয়ারচর থানার এস.আই মোঃ শফিকুল ইসলাম অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনা তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পিএন/এএমএস


করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন পিপলস নিউজ‘এ । আজই পাঠিয়ে দিন feature.peoples@gmail.com মেইলে