• আজ ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কুলিয়ারচরের নৌকার মাঝি এস.এম আজিজ উল্ল্যাহ আওয়ামী পরিবারের সন্তান

| ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি, মোঃ মাইন উদ্দিন ১০:২৭ পূর্বাহ্ণ | নভেম্বর ৪, ২০২১ সারাদেশ

আগামী ২৮ নভেম্বর তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত হবে কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলার ছয় ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে পাঁচটিতে ইউপি নির্বাচন। এর আগে গত ১৪ অক্টোবর নির্বাচন কমিশন কর্তৃক তৃতীয় ধাপে ইউপি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর থেকে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন নৌকা পেতে দৌড়-ঝাপ ও লবিং শুরু করে মনোনয়ন প্রত্যাশীরা।

এ অবস্থা থেকে বাদ ছিল না উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নের নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশীরাও। অবশেষে সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটে গত ২৪ অক্টোবর রোববার বিকেল ৩ টার দিকে। সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে ফরিদপুর ইউনিয়নে বঙ্গবন্ধুর নৌকার মাঝি এই ইউনিয়নের আওয়ামী পরিবারের কৃতি সন্তান আলহাজ্ব এস.এম আজিজ উল্ল্যাহ। সাথে সাথে বের হয় আনন্দ মিছিল।

নৌকার মাঝি আলহাজ্ব এস.এম আজিজ উল্ল্যাহ শুধু একটি নাম নয়, এ নামটির সাথে জড়িয়ে আছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও আওয়ামী লীগের শত বছরের ইতিহাস। তার পারিবারিক রাজনৈতিক ইতিহাস থেকে জানা যায়, এস.এম আজিজ উল্ল্যাহ আওয়ামী লীগের এক নিবেদিত প্রাণ। তিনি ১৯৬৬ সালের ২ ফেব্রুয়ারি কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলার পশ্চিম অঞ্চল ফরিদপুর ইউনিয়নের এক মুসলিম সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। তার পিতার নাম মরহুম মনসুর আহাম্মদ ও মাতা মরহুমা রেজিয়া খাতুন।

আলহাজ্ব এস.এম আজিজ উল্ল্যাহর পরিবারিক রাজনৈতিক ইতিহাসে দেখা গেছে, তার বড় চাচা মরহুম মকবুল আহম্মদ ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ও বৃহত্তর ময়মনসিংহ জেলা মুক্তি যোদ্ধা সংংগঠক ও কুলিয়ারচর থানা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। এছাড়াও তিনি ফরিদপুর ইউনিয়ন পরিষদের দুইবারের নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান ও ফরিদপুর ইউনিয়ন আব্দুল হামিদ ভূঞা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা।

ছোট চাচা মরহুম এডভোকেট সৈয়দ আহম্মদ ছিলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং মুক্তিযোদ্ধা সংগঠক। রাজনৈতিক জীবনে তিনি ছিলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ (কেন্দ্রীয় কমিটি)- এর প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক। যে কমিটির সভাপতি ছিলেন জতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাগিনা মরহুম শেখ মনি। পরবর্তীতে তিনি হয় আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক। এছাড়াও তিনি ছিলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেট সিন্ডিকেট সদস্য ও বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের চেয়ারম্যান।

এস.এম আজিজ উল্ল্যাহর বড় ভাই আসাফউদ্দৌলা (এম কম) ছিলেন (অবঃ ব্যাংক কর্মকর্তা)। তিনিও বীর মুক্তিযোদ্ধা। মেঝো ভাই এস.এম ওয়ালী উল্লাহ (এম.এস.এস) ছিলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার।

আওয়ামী রাজনীতি পরিবারের এই কৃতি সন্তান এস.এম আজিজু উল্ল্যাহ ছিলেন, মেধাবী ছাত্র। ছাত্রজীবন থেকেই ছাত্র রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন তিনি। পরে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এম এ (দর্শন) ডিগ্রি অর্জন করেন। ছাত্র রাজনীতিতে তিনি ছিল অত্যন্ত সোচ্চার। স্থানীয় রাজনীতিতে ১৯৯৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি বিএনপির প্রহসনের নির্বাচন প্রতিহত করার সার্বিক ব্যবস্থা করেছিলেন তিনি। যার ফলে ২০০২ সালে বিএনপি দ্বারা জেল, জুলুম ও নির্যাতন সহ্য করতে হয় তার।

সংগ্রামী ও অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী এস.এম আজিজু উল্ল্যাহ ফরিদপুর ইউনিয়নবাসী সকলের চোখে একজন ন্যায়বিচারক। তিনি কখনও আন্যায়ের কাছে মাথানত করেনি। যে কারণে তিনি ১৯৯৬ সাল থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত ফরিদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন। তাকে ফরিদপুর ইউনিয়ন তথা কুলিয়ারচর উপজেলা সহ আশপাশের উপজেলার সকলেই একজন সফল চেয়ারম্যান হিসেবে চেনে। এ ছাড়াও তিনি ২০১৩ সাল থেকে এ নির্বাচনে মনোনয়ন পত্র দাখিল পর্যন্ত ফরিদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নির্বাচিত সভাপতি ছিলেন।

রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান ও আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ফরিদপুর ইউনিয়ন থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক নৌকার মাঝি এস.এম আজিজ উল্ল্যাহর সাথে গত মঙ্গলবার ২ নভেম্বর সকালে একান্ত আলাপকালে তিনি বলেন, সারাজীবন আমার পরিবারের সকলকে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করতে দেখেছি। তাই আওয়ামী লীগকে ভালোবেসে- সমাজ তথা ফরিদপুর ইউনিয়নের অবহেলিত মানুষের উন্নয়নের লক্ষ্যে আওয়ামী রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের রাজনীতি করছি। আমার বিশ্বাস, আগামীদিনে তৃণমূলে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার জন্য ও নৌকাকে ফরিদপুরবাসী বিজয় করবে ইনশাআল্লাহ।

তিনি প্রধানমন্ত্রী ও ভৈরব-কুলিয়ারচর আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি আলহাজ্ব নাজমুল হাসান পাপন সহ কুলিয়ারচর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইমতিয়াজ বিন মুছা জিসানকে অভিনন্দন জানান। একই সময় ফরিদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ দলমত নির্বিশেষে সকল শ্রেণি পেশার মানুষকে সব বেঁধাবেদ ভুলে নৌকা প্রতীকের পক্ষে কাজ করে নৌককে বিজয়ী করার জন্য আহবান জানান।

পিএন/জেটএস


করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন পিপলস নিউজ‘এ । আজই পাঠিয়ে দিন feature.peoples@gmail.com মেইলে