• আজ ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

পণ্য বর্জনের ডাক, ফ্রান্সের ঘড়ি ফেলে দিলেন ফারিয়া

| নিউজ রুম এডিটর ৬:৪৮ অপরাহ্ণ | অক্টোবর ৩১, ২০২০ বিনোদন, হেডার স্কল
- পণ্য বর্জনের ডাক, ফ্রান্সের ঘড়ি ফেলে দিলেন ফারিয়া । ছবি: পিপলস নিউজ

ফ্রান্স সরকারের ইসলাম বিরোধী মনোভাব ও মুহাম্মদকে (সা.) অবমাননার প্রতিবাদ জানালেন ঢালিউড অভিনেত্রী নুসরাত ফারিয়া। ফরাসি পণ্য বর্জনের আহ্বান জানিয়েছে তিনি।

শনিবার (৩১ অক্টোবর) রাত ২টায় ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে ফারিয়া এ তথ্য জানান ভক্তদের।

ফেসবুকে নুসরাত লিখেছেন, আমি আমার (ফরাসি ব্যান্ডের) কার্টিয়ের ঘড়িটি ফেলে দিচ্ছি। স্ট্যাটাসে দেয়া তার হ্যাশট্যাগে ফরাসি পণ্য বর্জনের ডাক দিয়েছেন ফারিয়া। নুসরাতের এ অবস্থানে সঙ্গে অনেকেই সাধুবাদ জানিয়েছেন, সমর্থন দিয়েছেন।

সম্প্রতি ‘পাতালঘর’ শিরোনামে একটি সিনেমার শুটিং শেষ করেছেন নুসরাত ফারিয়া। এ ছাড়া ৭ নভেম্বর থেকে ওয়েব ফিল্ম ‘যদি… কিন্তু… তবুও’র শুটিংয়ে অংশ নেওয়ার কথা আছে তার।

ইসলাম বিরোধী উগ্র মনোভাবের জন্য ফ্রান্স সরকারের কঠোর সমালোচনা করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান, তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেফ তাইয়্যিপ এরদোয়ানসহ বিশ্বের বহু মুসলিম নেতা।এরই মধ্যে কুয়েতসহ বিভিন্ন দেশের মার্কেট থেকে ফ্রান্সের পণ্য সরিয়ে নেয়া হচ্ছে। এর নানা ছবি ও ভিডিও ছড়িয়ে পড়ছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। অনেকেই হ্যাশ ট্যাগের সঙ্গে জুড়ে দিচ্ছেন এসব ছবি ও ভিডিও।

ফ্রান্সের সরকারি বিভিন্ন সংস্থার দেয়ালে শার্লি এবদোর সেই বিতর্কিত ১২টি কার্টুন প্রদর্শন করা হচ্ছে। দেশটির সরকার এবং কয়েকটি গণমাধ্যমের এমন সিদ্ধান্তের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশন (ওআইসি)। ফ্রান্সের কয়েকটি ভবনের সামনে এবং সরকারের সন্ত্রাসবাদের সঙ্গে ইসলামকে সম্পৃক্ত করা এবং নবী মুহাম্মদকে (সা.) অপমানজনক প্রচারণার সমালোচনা করেছে সংস্থাটি।

ওআইসির বিবৃতিতে বলা হয়, আমরা নবী মুহাম্মদ (সা.)-এর অবমাননা, মুসলমানদের ধর্মীয় অনুভূতিতে ক্রমাগত আঘাতের নিন্দা জানাই। রাজনৈতিক স্বার্থে ফ্রান্সের নাগরিক ও ইসলামকে মুখোমুখি দাঁড় করানোর ঘৃণ্য চেষ্টা করছেন কতিপয় ফরাসি কর্মকর্তা। বাক-স্বাধীনতার নামে কারও ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানা কখনোই গ্রহণযোগ্য নয়। সংস্থাটি ফ্রান্সকে তার বৈষম্যমূলক নীতিগুলো পর্যালোচনা করার আহ্বান জানিয়েছে।

শনিবার দুপুরে নুসরাত ফারিয়া অন্য আরেকটি স্ট্যাটাসে বলেন, ‘কেন আমাদের সকলকে একটি সহজ জিনিস জটিল করে তুলতে হবে? যদি কারও বক্তব্য আমার অনুভূতিতে আঘাত করে তবে আমার কী তা প্রকাশ করার অধিকার নেই বা আমি অভিনেত্রী হওয়ায় আমার কোনও মতামত থাকতে পারে না? আমার ধর্ম আমার বিশ্বাস এবং আমার পক্ষ নেয়ার ২০০% অধিকার রয়েছে। এটি আমার বিশ্বাস এবং আমি তা সবার সাথে শেয়ার করার অধিকারী রাখি।

যাই হোক এটিকে কিভাবে নেবেন সেটি আপনার বিষয়, আমার নয়।’

পিএন/এএমএস

, ,

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন পিপলস নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - feature.peoples@gmail.com