• আজ ৩১শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
পিপলস শিরোনাম
 অবশেষে নিখোঁজ সাবমেরিনের ধ্বংসাবশেষ উদ্ধার, বেঁচে নেই ৫৩ নাবিক | তালিকা পাঠান, নিজেরাই জেলে যাব: হেফাজতে আমির | প্রকৌশলী রাসেল সড়ক দুর্ঘটনায় নি’হ’ত,প্রাক্তন ছাত্র সমিতির শোক। | হাটহাজারীতে হেফাজতের শীর্ষ নেতাদের নিয়ে জরুরি বৈঠক | মোদিবিরোধী বিক্ষোভ তামিলনাড়ুতে, আটক ৬০ | ভাড়া দ্বিগুণ, অধিকাংশ গণপরিবহনই সামাজিক দূরত্ব মানছে না | স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীকে কলঙ্কিত করতে হেফাজতের নাশকতা : বেনজীর | রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় বিএনপির চার নেতার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা | নির্বাচন ও আন্দোলনে ব্যর্থতার জন্য বিএনপি নেতাদের ‘টপ টু বটম’ পদত্যাগ করা উচিত : কাদের | বাংলাদেশের মানবাধিকারের বিভিন্ন ইস্যুতে কড়া সমালোচনা করেছে যুক্তরাষ্ট্র |

বানিয়াচঙ্গের ১ বিধবা, সিএনজিতে ধর্ষকদের লালসার শিকার : ২ ধর্ষক আটক

বানিয়াচং উপজেলার বিধবাকে ধর্ষণের ঘটনায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে ২ ধর্ষক। গতকাল বিকালে আদালতে ১৬৪ ধারার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয় ধর্ষক সুজন মিয়া ও সায়মন আহমেদ শামীম। এ ঘটনায় একজন পলাতক রয়েছেন।

হবিগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ মাসুক আলী জানান, গত ১১ এপ্রিল সন্ধ্যা ৭টার দিকে সিলেট থেকে ২৫ বছর বয়সী ঐ বিধবা নতুন ব্রীজ এসে নামেন এবং বানিয়াচং উপজেলার নিজের বাড়িতে গুনই গ্রামে যাবার জন্য অপেক্ষা করেন। সেখানে অপেক্ষার সময় সিএনজি চালকসহ দুই যুবক তাকে ফুসলিয়ে হবিগঞ্জে নিয়ে যাবার চেষ্টা করে।

তখন ওই নারী বুঝতে পারেন তাদের কুমতলব। এক পর্যায়ে একটি টমটমে উঠে হবিগঞ্জের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন। তখন রাত ৮টা হয়ে যায়। এক পর্যায়ে কলিমনগরের স্পিড বেকারের নিকট এসে টমটমের চার্জ শেষ হয়ে যায়। এদিকে ওই সিএনজিটি টমটমের পিছু আসতে শুরু করে। তখন সিএনজি চালক জনি মিয়া কৌশলে ওই নারীকে তার সিএনজিতে তুলে। তখন ওই সিএনজিতে যুবকরা ছিল। দ্রুত সিএনজিটি চালিয়ে ধুলিয়াখাল-মিরপুর সড়কে প্রবেশ করে লস্করপুর ইউনিয়ন অফিসের অদূরে একটি নির্জন স্থানে সিএনজির ভেতরে ওই নারীকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে একের পর এক তিনজন ধর্ষণ করে।

তখন নারী বলে আমাকে তোমরা হবিগঞ্জ পৌছে দাও। কাউকে কিছু বলব না। তারা ওই নারীকে নিয়ে হবিগঞ্জে আসার পথে চরহামুয়া পয়েন্টে আসামাত্র দোকানপাট দেখে চিৎকার শুরু করলে স্থানীয় লোকজন ঘেরাও করে সিএনজিসহ দুই ধর্ষককে আটক করে। তখন সিএনজি চালক জনি মিয়া পালিয়ে যায়। আটক দুই যুবক চুনারুঘাট উপজেলার ঝিকুয়া গ্রামের রেনু মিয়ার পুত্র সুজন মিয়া (২৫), কাছম আলীর পুত্র সায়মন আহমেদ শামীম (২০)।

স্থানীয় লোকজন আটকদের উত্তম মধ্যম দিয়ে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ তাদেরকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে এবং ভিকটিমকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় ও সিএনজি জব্দ করা হয়। এ ঘটনায় ভিকটিম নিজেই বাদি হয়ে গণধর্ষণের মামলা করেছে। গতকাল সোমবার বিকেলে শামীম ও সুজন মিয়াকে হবিগঞ্জ অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রেরণ করলে তারা ধর্ষণের কথা স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। তবে এ মামলার অপর আসামি শায়েস্তাগঞ্জের সিএনজি চালক জনিকে খুঁজছে পুলিশ।

ওই নারী জানায়, তার বাড়ি গুনই। তিনি ওই গ্রামের রাজার মিয়ার কন্যা। দুই বছর আগে রাজু মিয়া নামের এক যুবকের সাথে তার বিয়ে হয়। বিয়ের ৬ মাসের মাথায় বানিয়াচংয়ে মোটর সাইকেল দূর্ঘটনায় মারা যায়। এরপর তিনি সিলেটে একটি কোম্পানীতে চাকরি করে আসছেন। লকডাউনে কোম্পানীর ছুটি থাকায় ঘটনার দিন বাড়ি আসছিলেন।

পিএন/আর

,

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন পিপলস নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - feature.peoples@gmail.com