• আজ ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

পাকুন্দিয়ায় বিশ্ব মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহ পালিত

| দেশজুড়ে ডেস্ক ৭:২১ অপরাহ্ণ | আগস্ট ১৬, ২০২১ ঢাকা, সারাদেশ
পাকুন্দিয়ায় বিশ্ব মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহ পালিত

জাহিদ হাসান মুক্তার, পাকুন্দিয়া (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি: প্রতিবছর পৃথিবীর ১২০টিরও বেশি দেশে ১ থেকে ৭ আগস্ট বিশ্ব মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহ পালন করা হয়। করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির কারণে এক সপ্তাহ পর সীমিত পরিসরে দিবসটি পালন করে কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।

সোমবার (১৬ আগস্ট) উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর হল রুমে বিশ্ব মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহ এর আয়োজন করা হয়। শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ানোয় উৎসাহ দিতে এবং শিশুদের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটাতে এই কর্মসূচির আয়োজন। সদ্যোজাতকে পুষ্টির জোগান দিতে বুকের দুধের কোনও বিকল্প নেই।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.শারমিন শাহনাজ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সদ্য যোগদানকৃত উপজেলা নির্বাহী অফিসার রোজলিন শহীদ চৌধুরী, উপজেলা চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রেনু, আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. রাবেয়া আক্তার, ডা. শাহ মোহাম্মদ হাসানুর রহমান, ডা. তানজিম হোসেন, ডা. এজাজ জাহিদুল ইসলাম, ডা. মাহমুদুল হাসান, ডা. আশরাফুজ্জামান খান সহ সকল নার্স সদস্য।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, মাতৃদুগ্ধ পানে শিশু যেমন সুস্থ-সবল হয়ে বেড়ে ওঠে, তেমনি উপকৃত হন প্রসূতি নিজেও। শুধুই মাতৃদুগ্ধ পান করালে বছরে আট লাখেরও বেশি শিশুর জীবন রক্ষা পাবে। যে শিশুদের বেশির ভাগেরই বয়স ছয় মাসের কম। মাতৃদুগ্ধ পান করালে মায়েদের স্তনে ক্যানসার, ডিম্বাশয়ের ক্যানসার, টাইপ–২ ডায়াবেটিস ও হৃদ্‌রোগের ঝুঁকি অনেকাংশে হ্রাস পায়।

বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশে ২০১০ সাল থেকে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বিশ্ব মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহ জাতীয়ভাবে পালিত হচ্ছে। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়, জাতীয় পুষ্টিসেবা, জনস্বাস্থ্য পুষ্টি প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগে বাংলাদেশ ব্রেস্টফিডিং ফাউন্ডেশন (বিবিএফ) ও অন্যান্য সহযোগী সংস্থার সহযোগীতায় বাংলাদেশে বিশ্ব মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহ সফলভাবে উদযাপিত হয়ে আসছে। এই বছরের বিশ্ব স্তনদানের সপ্তাহের প্রতিপাদ্য হল ‘বুকের দুধ খাওয়ানো রক্ষা করুন, একটি ভাগ করা দায়িত্ব’ ওয়ার্ল্ড অ্যালায়েন্স ফর ব্রেস্টফিডিং অ্যাকশন (ওয়াবা)।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.শারমিন শাহনাজ দৈনিক আলোকিত সকাল কে জানান, ১ থেকে ৭ আগস্ট এর মধ্যে প্রোগ্রাম করার কথা থাকলেও করোনার ভাইরাসের কারনে, সরকারি বিধি নিষেধ থাকায় সবাইকে একত্রে করা সম্ভব হয় নি। তাই পোগ্রামটি দেরিতে করতে হয়েছে।

পিএন/এফএইচপি

, ,

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন পিপলস নিউজ‘এ । আজই পাঠিয়ে দিন feature.peoples@gmail.com মেইলে