১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং, বুধবার

শরীয়তপুরে প্রেমিকের সামনে বিষ পান করে ঢলে পড়লেন প্রেমিকা

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ৭, ২০২০

| নিজস্ব প্রতিনিধি, পিপলস নিউজ

শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলায় প্রেমিকের বিয়ের সংবাদ শুনে বিষ পান করলেন প্রেমিকা। বুধবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টার দিকে উপজেলার নওপাড়া ইউনিয়নের জয় বাংলা বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। অসুস্থ অবস্থায় প্রেমিকাকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতলে ভর্তি করা হয়েছে।

মেয়েটির পরিবার ও স্থানীয় সূত্র জানায়, নড়িয়া উপজেলার নওপাড়া ইউনিয়নের হাওলাদার কান্দি গ্রামের আইয়ুব আলী হাওলাদারের ছেলে সাইফুল ইসলামের (২৫) সঙ্গে জাজিরা উপজেলার মৃধাকান্দি (চিটার চর) গ্রামের ঊনিশ বছরের এক মেয়ের ২০১৯ সালের জানুয়ারি মাসে মোবাইলে রং নম্বরে প্রথম বন্ধুত্ব, পরে দেখা সাক্ষাতে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে অনেকবার সাইফুল মেয়েটার সঙ্গে দৈহিক সম্পর্কও করে। প্রেমিকাকে রেখে হঠাৎ নিজ গ্রামের আরেকটি মেয়েকে বিয়ে করেছে সাইফুল। বিয়ের সংবাদ শুনে প্রেমিকা প্রেমিক সাইফুলকে কল দেয়। বিয়ের বিষয় নিয়ে তাদের গতকাল মঙ্গলবার (৪ ফেব্রুয়ারি) রাতে মোবাইলে বাকবিতণ্ড হয়।

পরে বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে প্রেমিকা বাড়ি থেকে জয় বাংলা বাজারে গিয়ে সাইফুলের খাবার হোটেলের সামনে গিয়ে বিষ পান করে এবং প্রেমিকের গায়ে ঢলে পড়ে। সঙ্গে সঙ্গে সাইফুল পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা মেয়েটিকে নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে রেফার্ড করেন। বর্তমানে মেয়েটি হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

মেয়েটি বলেন, সাইফুলের সঙ্গে আমার প্রেমের সম্পর্ক। বিয়ের কথা বলে অনেকবার আমার সঙ্গে দৈহিক সম্পর্ক করেছে সে। কিন্তু গতকাল জানতে পারি আমাকে রেখে সাইফুল তার গ্রামের একটি মেয়েকে বিয়ে করছে। বিয়ের সংবাদ শুনে (মঙ্গলবার) রাতে আমি সাইফুলকে মোবাইলে ফোন দেই। আমাকে বিয়ে করতে হবে বললে, সে অস্বীকার করে। আমাকে গালিগালাজ করে। আর বলে তুই মরে যা, আমাকে মুক্তি দে।

তিনি আরও বলেন, বিয়ে করবে বলে সাইফুল আমার কাছ থেকে নগদ ও স্বর্ণ লাগিয়ে এক লাখ টাকা নিয়েছে। টাকা ও স্বর্ণের জন্য বাবা-মা আমাকে প্রতিদিন বকে। প্রেমিক সাইফুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করতে চাইলে তাকে পাওয়া যায়নি।

জয় বাংলা বাজারের হোটেল ব্যবসায়ী আফজাল কবিরাজ বলেন, সকালে বাজারে দোকান করছি। হঠাৎ দেখি আমার পাশের দোকানের মালিক সাইফুলের গায়ের ওপর একটি মেয়ে ঢলে পড়ছে। পরে সাইফুল তাৎক্ষণিক পালিয়ে যায়। মেয়েটি অসুস্থ অবস্থায় মাটিতে পড়ে গেলে আমরা কয়েকজন মিলে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাই।

হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. ইসরাত রিজোয়ানা বলেন, মেয়েটি বিষ পান করে আমাদের হাসপাতালে আসে। আমরা তাকে চিকিৎসা দিয়েছি। তিনি এখন অনেকটা সুস্থ আছেন।

জাতীয় মহিলা সংস্থা শরীয়তপুরের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট রওশন আরা বলেন, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দৈহিক সম্পর্ক করবে, টাকা-স্বর্ণ লুটে নেবে এটা মেনে নেয়া যায় না। ছেলেটি মেয়েটির সঙ্গে প্রতারণা করেছে। মেয়েটি আইনের আশ্রায় চাইলে আমরা পাশে আছি।

নড়িয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান বলেন, বিষয়টা আমি শুনলাম। কেউ অভিযোগ করতে আসলে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস ও মতামত কলামে লিখতে পারেন আপনিও – Peoplesnews24.com@gmail.com ইমেইল করুন  

আরও পড়ুন

%d bloggers like this: