ঢাকা, ৮ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

পান খেতে চাওয়ায় থেঁতলে দেয়া হলো পাগলীর মুখ

প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, মার্চ ২৬, ২০২০ ৬:২৭ অপরাহ্ণ  

| হাবিব, ডেস্ক এডিটর

পান খেতে চাওয়ায় ফরিদা বেগম (৫০) নামের মানসিক ভারসাম্যহীন ভিক্ষুক মহিলাকে পা দিয়ে পিষে মুখ থেঁতলে দেয়ার ঘটনা ঘটেছে। বুধবার (২৫ মার্চ) বিকালে পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া পৌর শহরের দক্ষিণ বন্দরে পান দোকানী আব্দুর রহিম এই অমানুষিক কাজটি করেছে বলে অভিযোগ এসেছে।

স্থানীয় লোকজন পুলিশের সহায়তায় এই মহিলাকে উদ্ধার করে মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছেন।

জানা গেছে, উপজেলার টিকিকাটা ইউনিয়নের ছোট শিংগা গ্রামের হত দরিদ্র জবেদ আলীর মেয়ে ফরিদা নিজের গ্রাম থেকে উপজেলা সদরে আসেন ভিক্ষা করতে। বিকালের দিকে পান দোকানী আব্দুর রহিমের দোকানে গিয়ে পান খেতে চায় সে। না করার পরেও মানসিক ভারসাম্যহীন ফরিদা পান চাওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেআব্দুর রহিম।

একপর্যায়ে দোকান থেকে বের হয়ে বাইরে এসে ফরিদাকে টেনে হিঁচড়ে রাস্তায় ফেলে দেয়। তারপরেও রাগ না মেঠায় জুতা পড়া পা দিয়ে পিষে দেয় ফরিদার মুখ। একপর্যায়ে থেঁতলে যায় ফরিদার মুখ মন্ডল।

পরে স্থানীয়রা এসে বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে আব্দুর রহিমকে আটক করে পুলিশকে খবর দেয়। থানা থেকে পুলিশ এসে আহত ফরিদাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়। একইসাথে পাষণ্ড আব্দুর রহিমকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

মঠবাড়িয়া থানার এসআই মানিক মিয়া জানায়, অভিযুক্ত দোকানীকে আটক করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার প্রস্তুতি চলছে। আহত বৃদ্ধাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস ও মতামত কলামে লিখতে পারেন আপনিও – Peoplesnews24.com@gmail.com ইমেইল করুন  

সর্বশেষ

জনপ্রিয় সংবাদ