ঢাকা, ৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশে প্রথম ভার্চুয়াল ইয়ুথ পার্লামেন্ট অধিবেশন অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত: রবিবার, জুলাই ১৯, ২০২০ ৩:১২ অপরাহ্ণ  

| দেশজুড়ে ডেস্ক

করোনা পরিস্থিতিতে যখন সারা বিশ্ব স্থবির তখন দেশের শিক্ষা ব্যবস্থায় নতুন মাত্রা যোগ করেছে অনলাইন ক্লাস। আর ‘অনলাইন ক্লাস ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপায়ণে কিরূপ ভূমিকা পালন করবে’ তা নিয়ে জাতীয় সংসদের আদলে বাংলাদেশে প্রথম বারের মত অনুষ্ঠিত হয়েছে ভার্চুয়াল ইয়ুথ পার্লামেন্ট অধিবেশন। অধিবেশনে অংশগ্রহণ করেন বাংলাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীবৃন্দ এবং দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে অংশ নেওয়া মেধাবী তরুণরা। সেখানে তারা বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলার নিজ আসনের সংসদ সদস্য হিসেবে নিজের মতামত ও যুক্তি পেশ করেন।

কাজাকিস্তানের বানকিমুন ইন্সটিটিউট ফর এসডি এবং কসমস গ্লোবাল নেটওয়ার্কের সহযোগিতায় দুই দিনব্যাপী ইয়ুথ পার্লামেন্টের অধিবেশনের উদ্বোধন ও রাষ্ট্রপতির বক্তব্য দেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক ড. শাহ আজম শান্তনু। এছাড়াও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন ইয়ুথ পার্লামেন্টের সাধারণ সম্পাদক জনাব বিবেক মোর এবং কাজাকিস্তানের বানকিমুন ইন্সটিটিউট ফর এসডি এর প্রতিনিধি বিবি আলোমানোভা। অধিবেশনে স্পিকারের দায়িত্ব পালন করেন উক্ত প্ল্যাটফর্মের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জনাব সরকার তানভীর আহমেদ তানিম। ডেপুটি স্পিকার হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইয়ুথ পার্লামেন্টের জাতীয় এম্বাসেডর নওশিন ইয়াসমিন এবং ইয়ুথ ক্যাম্পাস এম্বাসেডর মাসুমা আন্নি।

অধিবেশনের প্রথম দিন ১৭ জুলাই (শুক্রবার) অংশগ্রহণকারী সকল যুব সাংসদদের নিয়ে কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় উদ্বোধনী বক্তব্য দেন ইয়ুথ পার্লামেন্টের সাধারণ সম্পাদক জনাব বিবেক মোর, প্রধান অতিথি ও বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেট মেট্রোপলিটান বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সভাপতি গাজী শাফিউল হাসান, বিতর্ক সংগঠক ও রাজধানীর গ্রিন হেরাল্ড আন্তর্জাতিক স্কুলের সিনিয়র ফ্যাকাল্টি শরিফুল আনোয়ার, কসমস আন্তর্জাতিকের প্রতিষ্ঠাতা সিঙ্গাপুরের উদ্যোগতা মিস পূজা শুকলা এবং ইয়ুথ পার্লামেন্টের সভাপতি সরকার তানভীর আহমেদ তানিম। উক্ত কর্মশালায় অতিথিবৃন্দ সংবিধান ও সংসদীয় ব্যবস্থা, সংসদের কার্যাবলী ও ইয়ুথ পার্লামেন্ট পদ্ধতি, বৈশ্বিক দিক বিবেচনায় ডিজিটাল শিক্ষাব্যবস্থা এবং অধিবেশনের প্রস্তাবনার ওপরে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেন।

অধিবেশনের দ্বিতীয় দিন ১৮ জুলাই (শনিবার), বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলার তরুণরা নিজ আসনের সংসদ সদস্য হিসেবে অংশগ্রহণের মাধ্যমে অনলাইন ক্লাস ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপায়ণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা বিষয়ে নিজেদের অভিমত যুক্তির মাধ্যমে তুলে ধরেন। পরে বিভক্তি ভোটের মাধ্যমে ‘বাংলাদেশের প্রতিটি শিক্ষাস্তরে অনলাইন ক্লাস ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপায়ণে ভূমিকা রাখবে’ মর্মে আনিত প্রস্তাবনাটির বিষয়ে ভোটিং অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত ভোটের ফলাফলে প্রস্তাবনাটি সংসদে গৃহীত হয়। সমাপনি অধিবেশনে বক্তব্য প্রদান করেন কমনওয়েলথ সেক্রেটারিয়েটের পিস বিল্ডিং ট্রেইনার ও ব্রিটিশ কাউন্সিলের ইয়ুথ লিডার মুরসালিন শাহ, বিতর্ক সংগঠক ও রাজধানীর গ্রিন হেরাল্ড আন্তর্জাতিক স্কুলের সিনিয়র ফ্যাকাল্টি শরিফুল আনোয়ার, ইয়ুথ পার্লামেন্টের সমন্বয়ক রাব্বিল আলামিন প্রমুখ।

বাংলাদেশের প্রথম ভার্চুয়াল ইয়ুথ পার্লামেন্ট অধিবেশনের উল্লেখযোগ্য অংশগ্রহণকারী হচ্ছেন তামান্না মুসতারী (প্রধানমন্ত্রী), শাপলা সুলতানা (সংসদ উপনেতা), ফয়সাল আকাশ (শিক্ষামন্ত্রী), রাব্বিউল জিলানী (আইন মন্ত্রী) এবং আলজিদা জামান ঐন্দ্রিলা (মাননীয় চিফ হুইপ)। এছাড়াও বিরোধী দলের পক্ষে ছিলেন শাহরিয়ার মনোন (বিরোধী দলীয় নেতা), মুশফিকুজ্জামান আকিব (উপনেতা), মোসা. নিশাত আরা মিতু (চীফ হুইপ), মেসবাহুল ইসলাম (হুইপ) এবং তাসনিম তাহসিন তনু ( হুইপ)।

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস ও মতামত কলামে লিখতে পারেন আপনিও – Peoplesnews24.com@gmail.com ইমেইল করুন  

সর্বশেষ

জনপ্রিয় সংবাদ