• আজ ২রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

১১ বছর পর কোপা ইতালিয়ান জিতল ইন্টার

১১ বছর পর ইতালিয়ান কাপের শিরোপা জিতেছে ইন্টার। বুধবার (১১ মে) রাতে রোমের অলিম্পিক স্টেডিয়ামে রোমাঞ্চকর ফাইনালে য়্যুভেন্তাসকে ৪-২ গোলে হারিয়েছে নেরাজ্জুরির।

ম্যাচের একেবারে শুরুতেই মাত্র ছয় মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে দারুণ এক গোল করে য়্যুভেন্তাসকে পিছিয়ে দেন ইন্টার মিডফিল্ডার নিকোলো বারেল্লা। এরপর অনেক চেষ্টা করেও সমতায় ফিরতে পারেনি য়্যুভেন্তাস। একের পর এক আক্রমণ করে যায় ভ্লাহোভিচ-দিবালারা। কিন্তু গোলের দেখা পায়নি তারা।

তবে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুর মাত্র পাঁচ মিনিটেই এগিয়ে যায় য়্যভেন্তাস। ডিফেন্ডার সান্দ্রোর গোলে সমতায় ফেরে তুরিনের বুড়িরা। এর দুই মিনিট পরই আবারো গোল করে এগিয়ে যায় য়্যুভেন্তাস। ৫২তম মিনিটে ইন্টার গোলরক্ষকের নিদারুণ ব্যর্থতায় দলকে এগিয়ে নেন ভ্লাহোভিচ।

এরপর ৮০তম মিনিটে সফল স্পট কিকে ম্যাচ সমতা আনেন ইন্টার মিডফিল্ডার কানহানোগ্লু। এরপর আর কোনো গোল না হলে ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে। লাউতারো মার্তিনেসকে য়্যুভেন্তাসের দুই ডিফেন্ডার বোনুচ্চি ও ডি লিখট ফাউল করায় পেনাল্টি পায় ইন্টার। ৯৯তম মিনিটে আরেকটি সফল স্পট কিকে দলকে এগিয়ে দেন পেরিসিচ। এর তিন মিনিট পর সেই পেরিসিচ করেন আরেকটি দুর্দান্ত গোল। সেই গোলেই নিশ্চিত হয়ে যায় ইন্টারের শিরোপা।

ইতালিয়ান কাপে এটি ইন্টারের অষ্টম শিরোপা। তাদের চেয়ে বেশি এ শিরোপা জিতেছে কেবল রোমা (৯) ও য়্যুভেন্তাস (১৪)। এতো শিরোপা জিতলেও ইতালিয়ান কাপের ফাইনালে ইন্টার ও য়্যুভেন্তাসের দেখা প্রায় হয় না বললেই চলে। সেই ১৯৬৫ সালে সবশেষ শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল দল দুটি। তার আগে খেলেছিল একবারই, ১৯৫৯ সালে। সেই দুইবারই জিতেছিল য়্যুভেন্তাস। তবে এবার এর পুনরাবৃত্তি হতে দেয়নি ইন্টার।

লিগ কাপের পাশাপাশি এবারের সিরি আ শিরোপা জেতার সুযোগও আছে ইন্টারের কাছে। যদিও তার জন্য লিগের শেষের দুই ম্যাচই জিততে হবে তাদের। আর অপেক্ষা করতে হবে এসি মিলানের পয়েন্ট হারানোর জন্য। কারণ দুই দলই সমান ম্যাচ খেলে দুই পয়েন্টে এগিয়ে আছে এসি মিলান।