• আজ ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পরও তাজউদ্দীনের সংসার চলত যেভাবে

| নিউজ রুম এডিটর ৫:৪০ অপরাহ্ণ | জুলাই ৬, ২০২৩ রাজনীতি

দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদের সন্তান ও সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী তানজিম আহমদ সোহেল তাজ। ২০১২ সালে রাজনীতিতে থেকে নিজেকে গুটিয়ে নেন। বর্তমানে রাজনীনিতে সক্রিয় না থেকেও নিজেকে প্রাসঙ্গিক রেখেছেন নানা অনিয়মের প্রতিবাদের মধ্য দিয়ে। বাবা জীবদ্দশায় পরিবারের জন্য কি রেখে গেছিলেন সে বিষয়ে খোলামেলা কথা বলেছেন সোহেল তাজ।

যুগান্তরকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সোহেল তাজ বলেন, আমাদের তেমন কোনো সম্পত্তি ছিল না, বাবা তো কিছুই রেখে যায়নি। আমাদের বাড়িটা একতলা ছিল। ১৯৬০ সালে একটা হাউস বিল্ডিং থেকে লোন নেন বাসাটা দোতলা করার জন্য।

এ সময় আমার মা বলেছিলেন, লোন নিচ্ছ কেন? বাসা দোতলা করার দরকার কি। আমরা তো একতলায় থাকতে পারি। বাবা তখন আমার মাকে বলেছিলেন— একদিন বুঝবা কেন? উনি (তাজউদ্দীন) কষ্ট করে লোন নিয়ে বাসাটা দোতলা করে রেখে গেছিলেন। এটাই আমাদের একমাত্র সম্বল ছিল। পরে আমার মা বাসাটা ভাড়া দিয়ে সংসার চালাতেন। বলতে গেলে এটাই পরিবারের সম্বল।

ইতিহাসের বিভিন্ন নথিতে উল্লেখ রয়েছে— তাজউদ্দীন আহমদ অন্তত সাদাসিদে জীবন যাপন করতেন। তিনি প্রধানমন্ত্রী থাকা অবস্থায়ও একটি কাঠের চৌকিতে রাত কাটাতেন। বিলাসিতা তার পরিবারকে ছুঁতে পারেনি।