• আজ ৩রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

সমুদ্র সম্পদ ব্যবহার করে অর্থনীতিকে মজবুত করতে হবে

| নিউজ রুম এডিটর ৪:২৫ অপরাহ্ণ | মার্চ ৬, ২০২২ জাতীয়, লিড নিউজ

সমুদ্র সম্পদ ব্যবহার করে অর্থনীতিকে মজবুত করতে হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ বিষয়ে মেরিন ফিশারিজ একাডেমি’র ক্যাডেট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

রোববার চট্টগ্রামের কর্ণফুলি নদীর তীরে মেরিন ফিশারিজ একাডেমি’র ৪১তম ব্যাচের ক্যাডেটদের ‘মুজিববর্ষ পাসিং আউট প্যারেড’-এ যুক্ত হয়ে তিনি আহ্বান জানান।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মূল অনুষ্ঠানে যুক্ত হন। মূল প্যারেড গ্রাউন্ডে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে শক্তিশালীভাবে এগিয়ে যাচ্ছি। বঙ্গোসাগরে বিশাল সম্পদ রয়েছে। এ সম্পদ আহরণ করতে হবে। মৎস্য সম্পদ আহরণে গবেষণা ও উদ্যোগ নিয়েছি। এখনো আমাদের আরও অনেক কাজ করতে হবে। বঙ্গবন্ধু ৭ মার্চের ভাষণে স্পষ্ট ভাবে বলেছিলেন, দাবায়া রাখতে পারবে না। এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম। তিনি স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন। দেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করার জন্য শুধু স্বপ্ন নয়, পথও দেখিয়ে গেছেন বঙ্গবন্ধু।

তিনি বলেন, বঙ্গোপসাগর শুধু আমাদের জন্য না, আন্তর্জাতিক বাণিজ্যক্ষেত্রেও বিশাল গুরুত্বপূর্ণ। এখানে বিশাল সম্পদও রয়েছে। এখানে যেমন মৎস্য সম্পদ রয়েছে, তেমনি অন্যান্য সম্পদও আছে। সেগুলো আহরণ করে অর্থনীতিকে শক্তিশালী করতে পারবো, এটাই আমি আশা করি।

শেখ হাসিনা বলেন, আমরা ইতোমধ্যে জাতিসংঘ ঘোষিত এমডিজি সাফল্যের সঙ্গে বাস্তবায়ন করেছি, এসডিজিও সাফল্যের সঙ্গে বাস্তবায়ন করে যাচ্ছি। করোনার কারণে কিছুটা পিছিয়ে গেলেও আমরা এগিয়ে যাচ্ছি, অর্থনৈতিকভাবে শক্তিশালী হয়ে এগিয়ে যাচ্ছি। সামুদ্রিক সম্পদ ব্যবহার করে এসডিজি-১৪ এর লক্ষ্যমাত্র অর্জনে পদক্ষেপ নিয়ে যাচ্ছি। আমি আশা করি, এসডিজির লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে তোমাদের (মেরিন ফিশারিজ একাডেমি’র ক্যাডেট) ভূমিকা থাকবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করতে পেরেছি বলেই পাসিং আউটে যোগ দিতে পারছি। অর্জিত জ্ঞান তোমাদের কর্মক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা রাখবে। কঠোর পরিশ্রম, মূল্যবোধ, দেশপ্রেম কর্মক্ষেত্রে সাফল্যের মূলমন্ত্র। তোমরা সবসময় সাহসের সঙ্গে কাজ করবে। তোমরাই হবে সমৃদ্ধ বাংলাদেশের কর্ণধার।