• আজ ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

স্কুলছাত্রীকে অপহরণ, বখাটের হামলায় মা চাচিসহ আহত ৪

| নিউজ রুম এডিটর ৭:৪৩ অপরাহ্ণ | অক্টোবর ২০, ২০২২ লালমনিরহাট, সারাদেশ

আজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ
লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় স্কুলছাত্রীকে অপহরন। মেয়েকে উদ্ধার করতে গিয়ে বখাটেদের হামলায় মা চাচিসহ ৪জন আহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার(২০ অক্টোবর) দুপুরে আহতদের হাসপাতালে দেখতে যান থানা পুলিশের তদন্ত টিম।

এর আগে বুধবার(১৯ অক্টোবর) বিকেলে উপজেলার মহিষখোচা ইউনিয়নের দক্ষিণ বালাপাড়া রজবপাড়া গ্রামে হামলার ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, উপজেলার মহিষখোচা ইউনিয়নের রজবপাড়া গ্রামের মমিনুর ইসলামের ছেলে তোতা মিয়া(২৪) দীর্ঘ দিন ধরে প্রতিবেশী সামছুল হকের মেয়ে স্কুল ছাত্রী সীমা মনিকে(১৪) উত্ত্যাক্ত করে আসছিল। বিষয়টি নিয়ে বখাটে তোতা মিয়ার পরিবারকে একাধিকবার নালিশ করে মেয়েটির পরিবার। স্কুলছাত্রী মহিষখোচা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ফেরার পথে প্রায় সময় পথরোধ করে নিজ বাড়িতে নেয়ার চেষ্টা করে বখাটে তোতা মিয়া। কিন্তু সহপাঠিদের হস্তক্ষেপে রক্ষা মেলে তার।

বুধবার(১৯ অক্টোবর) বিকেলে প্রাইভেট শেষে একজন সহপাঠিসহ বাড়ি ফিরছিল স্কুলছাত্রী সীমা মনি। এসময় তার বাড়ির পাশে পৌছলে বখাটে তোতা স্কুলছাত্রীকে জোরপুর্বক টেনে হেচড়ে নিজ বাড়িতে নিয়ে ঘরে বন্দি করে রাখে। অস্ত্রের মুখে জিম্মী করে কোন শব্দ করতে দেয়নি তাকে।স্কুলছাত্রীর সহপাঠির খবরে মেয়েটির মা চাচিরা তাকে উদ্ধার করতে গেলে মেয়ের আত্নচিৎকারে একপর্যয়ে তারা মেয়ের সন্ধান পান। মেয়েকে নিতে চাইলে তাদের উপর হামলা চালায় বখাটে তোতা মিয়া ও তার লোকজন।

তাদের আত্নচিৎকারে স্থানীয়রা এসে স্কুলছাত্রীসহ তার পরিবারের আহত ৪জনকে উদ্ধার করে আদিতমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

এ ঘটনায় ওই দিন রাতেই বখাটে তোতা মিয়াকে প্রধান করে ১০জনের বিরুদ্ধে আদিতমারী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন স্কুলছাত্রীর বাবা। বিলম্বে হলেও বৃহস্পতিবার দুপুরে অভিযোগটি তদন্তে মাঠে নামে থানা পুলিশ।

ওই স্কুলছাত্রীর সহপাঠি মহিষখোচা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির একজন ছাত্রী বলেন, তোতা মিয়া প্রায় সময় বিদ্যালয় যাওয়া আসার পথে মেয়েদের ডিস্টাব করে। তোতার বাড়ির পাশে পৌছলে খুব ভয় করে।

স্কুলছাত্রীর বাবা জানান, পেশিশক্তির প্রভাবে বখাটে তোতা মিয়া নানান অপকর্ম করছে। জেনেও তার পরিবার কোন প্রতিকার করছে না। তার ভয়ে আমার মেয়ে ও তার সহপাঠিরা স্কুলে যেতে ভয় পায়। কয়েকদিন টানাহেচড়া করেছে। তার পরিবারকেও বলা হয়েছে। কিন্তু তারা শাসন না করে এসবে উৎসাহ দিয়ে আসছে। এবার থানায় অভিযোগ করেছি। দেখি পুলিশ কি ব্যবস্থা গ্রহন করে?

আদিতমারী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মোক্তারুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত চলছে। তবে এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।