• আজ ৯ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজধানীর প্রবেশপথে পুলিশের ব্যাপক তল্লাশি, ভোগান্তিতে সাধারণ যাত্রীরা

| নিউজ রুম এডিটর ১:৫৬ অপরাহ্ণ | জুলাই ১২, ২০২৩ জাতীয়, বাংলাদেশ, লিড নিউজ

রাজধানীতে একই দিনে বড় দুই রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির পালটাপালটি সমাবেশকে ঘিরে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। যেকোনো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়াতে তৎপর বিভিন্ন বাহিনীর সদস্যরা। সমাবেশকে কেন্দ্র করে রাজধানীর গাবতলী, আমিনবাজার, সাভার, আশুলিয়া এলাকায় তল্লাশি করছে পুলিশ।

বুধবার সকাল থেকে এ তল্লাশি শুরু করে ঢাকা জেলা পুলিশ ও ঢাকা মহানগর পুলিশ।

সাভার ও আশুলিয়ার সড়ক-মহাসড়কে বিভিন্ন পয়েন্টে চেকপোস্ট বসিয়ে যানবাহনে তল্লাশি করছে পুলিশ। এ সময় যাত্রীবাহী পরিবহণগুলোকে ঢাকায় প্রবেশে বাধা দেওয়ায় ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ যাত্রীরা। সাভারের আমিনবাজার এলাকায় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে তল্লাশি চলাকালে সড়কের ঢাকামুখী লেনে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন যাত্রীরা। তারা অভিযোগ করে বলছেন, দুই থেকে তিন ঘণ্টা পর্যন্ত তাদের আটকে থাকতে হচ্ছে। অনেকেই বাস থেকে নেমে পায়ে হেঁটে গন্তব্যের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন।

পুলিশ বলছে, এটা নিয়মিত তল্লাশির অংশ। তবে বাসের যাত্রী ও চালকেরা বলছেন, গত এক মাসেও আমিনবাজার ও গাবতলী এলাকায় এ ধরনের কোনো তল্লাশি দেখেননি তারা। বাসের চালকদের অভিযোগ, ‘গত এক-দুই মাসে এ ধরনের তল্লাশি হয়নি। তিন ঘণ্টা ধরে বসে আছি। গ্যাস খরচ হচ্ছে, যাত্রীদের কষ্ট হচ্ছে।’

এদিকে, নয়াপল্টনের বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সরকার পতনের এক দফা দাবিতে সমাবেশ শুরু হবে বুধবার দুপুর ২টায়। ইতোমধ্যে সকাল থেকেই নয়াপল্টন এলাকার বিভিন্ন পয়েন্টে নেতাকর্মীরা ভিড় করছেন। ঢাকা ও ঢাকার বাইরে থেকে এসেছেন এসব নেতাকর্মী। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তারা দলে দলে সমাবেশস্থলের দিকে পা বাড়ান।

অপরদিকে, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগকে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ গেটে শান্তি সমাবেশ করার অনুমতি দিয়েছে ডিএমপি। আওয়ামী লীগকে বেলা ৩টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত সময় বেধে দেওয়া হয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বাস চালক বলেন, সকাল থেকেই আমিনবাজারে পুলিশ চেকপোস্ট বসিয়ে আমাদের কোনো বাস ঢুকতে দিচ্ছে না। তাই বাধ্য হয়ে আমিনবাজার থেকে বাস ঘুরিয়ে আবার সাভারে ফেরত এসেছি।

এ ব্যাপারে সাভার মডেল থানার ওসি দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, ঢাকায় আদালত চত্বর থেকে যেই দুইজন জঙ্গী পালিয়ে গিয়েছিল, তাদের তথ্য পাওয়া গেছে এবং তারা এই পথ দিয়ে যেতে পারে সেজন্যই ওই জঙ্গিদের ধরতে পুলিশের পক্ষ থেকে আমাদের এই চিরুনি অভিযান চলছে।