• আজ ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শ্রীনগরে দুই ইউপি সদস্যর দ্বন্দ্বে হামলা,আহত ৯

| নিউজ রুম এডিটর ৬:১৯ পূর্বাহ্ণ | জানুয়ারি ২৪, ২০২২ মুন্সীগঞ্জ, সারাদেশ

মো:ফারুক খান,শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি: শ্রীনগর উপজেলার ভাগ্যকুলে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল সামদ ও নবনির্বাচিত সদস্য নুরুল আমিন মোড়লের দ্বন্দ্বে দফায় দফায় হামলা, ভাঙচূর ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় সাবেক ইউপি সদস্য সামাদের কন্যা তানিয়া (৩০), সমর্থক আজিবর (৪৮), ইউপি সদস্য নুরুল আমিন মোড়ল (৪০) সহ উভয় পক্ষের অন্তত ৯ জন আহত হয়েছে। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে।

রোববার বিকালে ইউনিয়নের আল-আমিন বাজারে প্রায় ঘন্টাব্যাপী ধরে এই হামলার ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে শ্রীনগর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে।

স্থানীয়রা জানায়, ভাগ্যকুল ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল সামাদ ও নবনির্বাচিত ইউপি সদস্য নুরুল আমিন মোড়লের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দ্বন্দ্ব চলছিল। এর মধ্যে ইউপি নির্বাচন, আল-আমিন বাজারের ইজারা, বাজার কমিটি গঠন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কমিটি সংক্রান্ত বিষয়সহ বিভিন্ন কাজকর্ম নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এরই ধারাবাহিকতায় আল-আমিন বাজারে দুই পক্ষ সংঘর্ষে জরিয়ে পরে। এ সময় নুরুল আমিনের লোকজন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা রফিকের একটি মোটরসাইকেল ভাঙচূর করে।

ইউপি সদস্য নুরুল আমিন মোড়ল বলেন, আমি শুনতে পাই সামাদ মেম্বারের লোকজন আমার চাচাত ভাইদের মারধর করছে। পুলিশকে খবর দিয়ে তৎক্ষনিক বাজারে যাই। এ সময় তারা আমার ওপরে হামলা চালায়।

আমিসহ ৫ জন আহত হই। সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল সামাদ বলেন, আমি আলোর দিশারী ক্লাবের সামনে বসা ছিলাম। দেখি নুরুল আমিন মোড়ল প্রায় ১৫/২০ জন লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বাজারে প্রবেশ করে আমার লোকজনের ওপর হামলা চালায়। বাজারে গিয়ে দেখি হামলাকারীরা আমার মেয়েসহ ৪ জনকে মেরে আহত করেছে। শ্রীনগর থানার এসআই মো. ইলিয়াছ জানান, ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে। এখন পরিবেশ শান্ত আছে।

এ ব্যাপারে শ্রীনগর থানার ডিউটি অফিসার এসআই তন্ময় মন্ডল জানান, এরই মধ্যে এক পক্ষ অভিযোগ করতে থানায় এসেছেন।