• আজ ৬ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঘোড়াঘাটে পৃথক পৃথক স্থানে ছিনতাই আটক ৪

| নিউজ রুম এডিটর ৮:৫৯ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ৮, ২০২২ সারাদেশ

ঘোড়াঘাট (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে পৃথক দুটি স্থানে ছিনতায়ের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাটি দুটি উপজেলার রামপুর টুবঘুরিয়া টু সুরা মসজিদ সড়কে ও অপরটি ঘটেছে রাণীগঞ্জ টু ডুগডুগীহাট সড়কে ঘটেছে। এই ঘটনায় উত্তেজিত জনতা ৪ জনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ্দ করেছে।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার রাত ১০ টার দিকে রিক এনজিও’র এক কর্মী তার কর্মস্থল রাণীগঞ্জ বাজার থেকে নিজ বাড়িতে ফেরার পথে রামপুর টু টুবঘুরিয়া ও সুরা মসজিদের মাঝখানে একটি ডিপ টিউবওয়েলের পাশে সড়কে কতিপয় ছিনতাইকারী তার মোটরসাইকেলটি আটক দেয়। এ সময় ছিনতাইকারীরা তার পকেটে থাকা নগদ টাকা বের করে নেয় এবং মারপিট করতে থাকে। এনজিও কর্মী সেখান থেকে সুকৌশলে মোটর সাইকেল টান দিয়ে সামনে একটি মোড়ে গিয়ে ডাকাত ডাকাত বলে চিৎকার করতে থাকে। তার আর্তচিৎকারে কাশিয়াতলা গ্রামের লোকজন বের হয়ে আসলে ছিনতাইকারীরা পালিয়ে যায়। এ খবরটি কোন এক ব্যক্তি ঘোড়াঘাট থানায় অবগত করলে টহলরত পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে কাউকে না পেয়ে ফিরে যায়।

অপরদিকে একই দিন দিবাগত রাত আড়াই টার দিকে রাণীগঞ্জ টু ডুগডুগীহাট সড়কের মাঝখানে একটি ব্রিজের নিকট কাজী ফার্মের একটি পিকআপ ঘটনাস্থলে পৌঁছলে ছিনতাইকারীরা গাড়ীতে থাকা লোকজনের নিকট থেকে নগদ টাকা-পয়সা ছিনিয়ে নেয় এবং তাদের বেদম মারপিট করে।
রিক নামের ওই এনজিও কর্মী গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার চানপাড়া গ্রাম থেকে তার ফেলে যাওয়া হেলমেটটি খোঁজার জন্য শুক্রবার সকাল নয় টার দিকে ঘটনাস্থলে আসে। খোঁজাখুজি এক পর্যায়ে হেলমেটটি একটি ডিপ টিউবওয়েলের পাশে পায়। এ সময় সন্দেহমূলক ভাবে ডিপ টিউবওয়েলের ঘরে উঁকি মেরে দেখে তিনজন লোক ঘুমাচ্ছে। তখন তার সাথে ঘটে যাওয়া ঘটনার কথা মনে পরতেই ওই দুই গ্রামের লোকজনকে ডেকে ডিপ টিউবওয়েলের নিকট আসলে দেখে দরজায় তালা লাগানো। এমন সময় সেখানে লোকজন ডিপ টিউবওয়েলের লাইনম্যান রামপুর টুবঘুরিয়া গ্রামের আব্বাস উদ্দিনের ছেলে খন্দকার মোঃ সোহানুর(৩৯) কে দেখতে পেয়ে দরজা খোলার জন্য গ্রামবাসী চাপ সৃষ্টি করে। কিন্তু সে বলে তার খালাতো ভাইয়েরা এখানে ঘুমাচ্ছে, দরজা খোলা যাবে না। এ সময় উপস্থিত লোকজন থানাতে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে ঘুমন্ত ওই তিনজন সহ লাইনম্যানকে আটক করে নিয়ে যায়।

আটকৃতরা হলো, জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি উপজেলার বিন্নিপাড়ার গ্রামের ইউসুফ আলী মন্ডলের পুত্র মিলন আলী মন্ডল ওরফে আঞ্জুমান(৪২) ও একই এলাকার মিজানুর রহমান মিজান(৩৪), দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার বিরামপুর গ্রামের হোসেন সরকারের পুত্র সানোয়ার সরকার(৪০) সহ ডিপ টিউবওয়েলের লাইনম্যান খন্দকার সোহানুর রহমান(৩৯)।

এ ব্যাপারে ঘোড়াঘাট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আমিনুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার কওে জানান, আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ অব্যাহত রয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।