• আজ ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দাওয়াত খেয়ে বাড়ি ফেরা হল না

| নিউজ রুম এডিটর ৮:০৩ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ১৩, ২০২২ টাঙ্গাইল, সারাদেশ

খায়রুল খন্দকার টাঙ্গাইল: টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার নগরবাড়ি ইউনিয়নের সুভাষ চন্দ্র আর্য এর ছেলে গোবিন্দ আর্য (৪২) চাচাতো ভাইয়ের বাড়ি থেকে দাওয়াত খেয়ে বাড়ি ফেরার পথে খুন হলো।

মঙ্গলবার (১২ এপ্রিল) সকালে উপজেলার হাতিয়ার ধলাটেঙ্গা রেল লাইনের পাশ থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করেছে ‍পুলিশ।

পরিবারের অভিযোগ গোবিন্দকে হত্যা করে রেললাইনের পাশে লাশ ফেলে রেখেছে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় এলাকার শোকের ছায়া নেমে এসেছে। বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ নিন্দা জ্ঞাপন করেছে। গোবিন্দ নারান্দিয়া ইউনিয়ন পূজা উদযাপন পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ইউনানি ঔষধ কোম্পানির মার্কেটিং প্রতিনিধি হিসেবে চাকরি করতেন।

গোবিন্দ আর্য্যরে পিতা সুভাষ চন্দ্র জানান, তার ছেলে ঋণগ্রস্থ ছিল। গোবিন্দকে পাওনাদাররা বিভিন্ন সময় হুমকি ও চাপ প্রয়োগ করে আসছিল। গোবিন্দর মরা দেহ পাওয়া গেছে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান কালিহাতী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোজহারুল ইসলাম তালুকদার, নারান্দিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদ তালুকদার, কালিহাতী উপজেলা উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের কাঁঁশীনাথ মজুমদার পিংকসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ। গোবিন্দ চন্দ্র আর্য স্ত্রী, দুই মেয়ে ও এক ছেলে বার বার মূর্ছা যাচ্ছেন। আত্মীয়-স্বজনদের আহাজারীতে ভারী হয়ে উঠেছে পরিবেশ।

গোবিন্দের চাচাত ভাই সাংবাদিক আপন আর্য্য মান্না জানান, সোমবার বিকালে গোবিন্দ ও কয়েকজন স্বজন তার বাসায় খাওয়া-দাওয়া করেন। পরে সন্ধ্যায় সবাইকে বিদায় দিয়ে গোবিন্দ কালিহাতী যাওয়ার উদ্দেশে বের হয়ে যান। এরপর থেকে তার আর কোন খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না।মঙ্গলবার সকালে স্থানীয়দের কাছ থেকে জানতে পারেন- রেল লাইনের পাশে গোবিন্দর মরদেহ পড়ে রয়েছে। পরে পুলিশ ও পরিবারের লোকজন লাশটি গোবিন্দ চন্দ্র আর্যের শনাক্ত করে। গোবিন্দর হাত-পা ভাঙা এবং পেটে ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে বলে তিনি জানান।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদ তালুকদার বলেন, গোবিন্দ চন্দ্র একজন ভালো মানুষ ছিলেন। তিনি একসময় কালিহাতী উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ছিলেন। বর্তমানে একটি ওষুধ কোম্পানির কর্মরত ছিলো। তার এ মর্মান্তিক মৃত্যু মেনে নেওয়া যায়না। এ ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে সুষ্ঠু বিচার দাবী করছি।

রেলওয়ে পুলিশ, ঘারিন্দা স্টেশন ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত এএসআই সাইফুল ইসলাম বলেন, লাশের মাথায় ও শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। হাত-পা ভাঙা লাশটি উদ্ধার করা হয়েছে।

কালিহাতী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোল্লা আজিজুর রহমান বলেন, মরদেহটি রেল লাইনের পাশে থাকায় বিষয়টি রেলওয়ে পুলিশ দেখবে।