• আজ ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফুটবলকে বিদায় জানানোর দিন পেলের পাশে ছিলেন মোহাম্মদ আলী

| নিউজ রুম এডিটর ৭:১১ অপরাহ্ণ | ডিসেম্বর ৩০, ২০২২ আন্তর্জাতিক, খেলাধুলা, ফুটবল

ক্যান্সারের সঙ্গে দীর্ঘ যুদ্ধ শেষে দুনিয়া থেকে চিরবিদায় নিয়েছেন ফুটবলের রাজা পেলে। বিশ্বব্যাপী ফুটবল ভক্তদের কাছে তিনিই সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ ফুটবলার। ফুটবল মাঠে একচ্ছত্র দাপট দেখিয়ে মাতিয়ে রেখেছেন ফুটবল ভক্তদের। ব্রাজিল জাতীয় দল, সান্তোস ও নিউইয়র্ক কসমস; সব জার্সিতে আলো ছড়িয়েছেন তিনি।

পেলের সঙ্গে বক্সার মোহাম্মদ আলীর বন্ধুত্ব ছিল। এই দুজন একই শতাব্দীতে খেলেছেন। নিজ নিজ খেলায় তারা ছিলেন অপ্রতিদ্বন্দ্বী। এই দুজনের বহু স্মৃতি আছে।

১৯৭৭ সালের ১ অক্টোবর নিউইয়র্ক কসমসে খেলার সময় পেলে নিজের বুটজোড়া যেদিন তুলে রাখেন সেদিন ওল্ড জায়ান্টস স্টেডিয়ামে উপস্থিত ছিলেন ভিন্ন এক খেলার কিংবদন্তি। তিনি সর্বকালের সেরা বক্সার মোহাম্মদ আলী। যিনি তিনবার হেভিওয়েট চ্যাম্পিয়ন শিরোপা জয়ী বক্সিং ইতিহাসের একমাত্র খেলোয়াড়।

সে রাতে পেলে যখন পেশাদার ফুটবলকে বিদায় জানালেন, মাঠেই ছিলেন মোহাম্মাদ আলী। খেলা শেষে মাঠে নেমে আসেন তিনি; অভিনন্দন জানান পেলেকে। লকাররুমেও পেলেকে সঙ্গ দেন তিনি।

এরপর অনেকবারই দুজনকে একসঙ্গে দেখা গেছে। ব্যক্তিগত জীবনে বন্ধুত্ব ছিল এই দুই কিংবদন্তির।

২০১৬ সালে যেদিন মোহাম্মদ আলী মারা যান সেদিন ভীষণ মর্মাহত হয়েছিলেন পেলে। বলেছিলেন আমার জীবনের বিশেষ এক মানুষকে হারালাম আজ। ‘আমার বন্ধু, আমার আইডল, আমার নায়ক। ঈশ্বরের কাছে তোমার শান্তি কামনা করি।’

বন্ধুর বিদায়ে আবেগঘন পেলে সেদিন আর বলেছিলেন, আমারা একসঙ্গে অনেক সময় কাটিয়েছি। এই দীর্ঘ সময়ে আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ ছিল। মোহাম্মাদ আলীর বিদায়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন পেলে।

একই সময়ের দুই কিংবদন্তি ছিলেন নিজেদের খেলায় সেরা। একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে ৩ বার বিশ্বকাপ জয় করা একমাত্র খেলোয়াড় পেলে। অন্যদিকে মোহাম্মদ আলী একমাত্র বক্সার যিনি তিনি হেভিওয়েট চ্যাম্পিয়ন শিরোপা জিতেছেন। একই সময়ে দুই ভিন্ন খেলায় নিজেদের সেরা পারফরমেন্স দিয়ে সর্বকালের সেরা হয়ে থাকবেন তারা।