• আজ ৩রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

এক মণ দুধে গোসলের পর যে প্রতিজ্ঞা করলেন রাজমিস্ত্রি

| নিউজ রুম এডিটর ১:২৬ অপরাহ্ণ | জুলাই ২৭, ২০২৩ সারাদেশ

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলায় এনজিওর ঋণের টাকা পরিশোধ করে এক মণ দুধ দিয়ে গোসল করেছেন এক রাজমিস্ত্রি। এ ঘটনায় এলাকাজুড়ে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকালে গোসলের পর ওই রাজমিস্ত্রি আর কোনো দিন সমিতি বা এনজিও থেকে ঋণ না নেওয়ার প্রতিজ্ঞা করেন।

রাজমিস্ত্রি শহিদুল ইসলাম (৩৫) শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার জাঙ্গালিয়াকান্দা গ্রামের মৃত আব্দুল কাদেরের ছেলে।

শহিদুলের দুধ দিয়ে গোসলের ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট করলে তা দ্রুত ভাইরাল হয়ে যায়।

ছবিতে দেখা যাচ্ছে, গাছপালা ঘেরা উঠানের মধ্যে বসে শহিদ দুধ দিয়ে গোসল করছেন। তাকে ঘিরে রেখেছেন কয়েকজন প্রতিবেশী। সামনের একটি বড় সিলভারের পাত্রে দুধ রাখা।

প্রত্যক্ষদর্শী প্রতিবেশী সাইফুল ইসলাম বলেন, তিন মেয়ে, স্ত্রীকে নিয়ে পাঁচ সদস্যের পরিবার শহিদুলের। প্রায় এক বছর আগে স্থানীয় একটি এনজিও থেকে ৫০ হাজার টাকা ঋণ নেন শহিদুল। ঋণের টাকা সাপ্তাহিক কিস্তিতে পরিশোধ করার কথা থাকলেও সংসারের আর্থিক টানাপোড়েনে তিনি নিয়মিত পরিশোধ করতে পারছিলেন না।

ফলে এনজিও কর্মকর্তাদের চাপের মুখে পড়েন। এর মধ্যে ঘরের হাঁস-মুরগি বিক্রি করে কিস্তির কিছু টাকা পরিশোধ করেন। শেষ পর্যন্ত নিজের একমাত্র গরুটি বিক্রি করে তিনি সেই এনজিওর ঋণ পরিশোধ করেন।

এ বিষয়ে কথা হয় শহিদুলের সঙ্গে। জানতে চাইলে তিনি বলেন, এনজিও থেকে ৫০ হাজার টাকা ঋণ নিয়ে নিয়মিত কিস্তি পরিশোধ করতে পারছিলাম না। কিন্তু ওই এনজিও থেকে কিস্তি পরিশোধে খুব চাপ ছিল। তাই গরু বিক্রি করে ঋণমুক্ত হয়ে দুধ দিয়ে গোসল করি। এর পর জীবনে কখনো কোনো সমিতি বা এনজিও থেকে ঋণ নেব না বলে শপথ করেছি। তবে কোনো এনজিও থেকে ঋণ নিয়েছিলেন তার নাম প্রকাশ করতে চাননি শহিদুল।