• আজ ৬ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

উপজেলা নির্বাচন: কী পর্যবেক্ষণ আওয়ামী লীগ-বিএনপির?

ব্যালটযুদ্ধে বিএনপি না থাকলেও উপজেলা নির্বাচন ঘিরে কথার লড়াইয়ে আওয়ামী লীগের মুখোমুখি রয়েছে দলটি। বিএনপি নেতারা বলছেন, সরকারের আজ্ঞাবহ নির্বাচন কমিশনের অধীনে এবারের ভোটও হবে সাজানো। যদিও নির্বাচনে জনগণের অংশগ্রহণ থাকবে না, বিএনপির এমন দাবি উড়িয়ে দিচ্ছেন ক্ষমতাসীনরা।
আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম এমপি (বাঁয়ে) এবং বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান। ছবি: সময় সংবাদ
আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম এমপি (বাঁয়ে) এবং বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান। ছবি: সময় সংবাদ
ফারুক ভূঁইয়া রবিন

নানা কারণেই এবারের উপজেলা নির্বাচনের পটভূমি, প্রাসঙ্গিকতা ভিন্ন। একদিকে বিএনপি দলীয়ভাবে নির্বাচন বর্জন করলেও স্থানীয় সরকারের এ ভোটে অংশ নিয়ে বহিষ্কার হয়েছেন দলটির প্রায় ১৫০ নেতা।

অন্যদিকে, গতবার দলীয় প্রতীকে ভোট করলেও এবার কাউকে নৌকা না দিয়ে নির্বাচন উন্মুক্ত রেখেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। আবার মন্ত্রী-এমপিদের স্বজনদের ভোটে না দাঁড়ানোর আহ্বান ছিল আওয়ামী লীগের। স্বজন কারা এ নিয়ে ভিন্ন ভিন্ন ব্যাখ্যাও দিয়েছেন তারা।

সব মিলিয়ে নতুন অভিজ্ঞতায় কেমন হয় উপজেলা নির্বাচন, সেদিকে চোখ সব মহলের। তবে অন্যসব বিষয়ের মতো এ নির্বাচন ঘিরেও রাজনৈতিক অঙ্গনে থেমে নেই কথার লড়াই। কেমন হবে ভোট, সে নিয়ে প্রধান দুই দলের পর্যবেক্ষণ একেবারেই বিপরীতমুখী।

এবারে নির্বাচনে জনগণের সাড়ার বিষয়ে আওয়ামী লীগে ব্যাপক আশাবাদ থাকলেও বিএনপি নেতারা বলছেন, ভোট বর্জন করে বিএনপির অনুকূলেই কথা বলবেন সাধারণ মানুষ।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান সময় সংবাদকে বলেন,

নির্বাচন কমিশন যে সরকারের আজ্ঞাবহ, সেটা তো আর বলার অপেক্ষা রাখে না। সাজানো নির্বাচনে অংশ নেয়া বা না নেয়ার মধ্যে তো কোনো বিভেদ নেই। বরং এ ধরনের নির্বাচনে অংশ নিয়ে সরকারকে বৈধতা দিলে মানুষ আমাদের প্রশ্ন করবে।

‘বাংলাদেশে বর্তমান নির্বাচনী পুরো ব্যবস্থাকে দেশের মানুষ বর্জন করেছে। এর একটি উদাহরণ ৭ জানুয়ারি আর দ্বিতীয় প্রমাণ পাওয়া যাবে ৮ মে’, যোগ করেন বিএনপির সিনিয়র এ নেতা।

আর আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাংসদ অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন,
অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশন এবং সরকার দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। এটা জাতীয় নির্বাচনের চেয়েও সুষ্ঠু হবে আশা করি।

আরও পড়ুন: শ্রমজীবী মানুষকে আওয়ামী লীগ বন্ধু মনে করে: কামরুল ইসলাম

তিনি আরও বলেন, বিএনপির বহিষ্কারের তালিকা যেভাবে বড় হচ্ছে, তাতেই বুঝা যাচ্ছে, তারাও নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। নির্বাচনে জনগণের স্বতঃস্ফূর্ততা আছে। এটা যে অত্যন্ত গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হবে, সেটা নিয়ে কোনো প্রশ্নও থাকবে না।
সাম্প্রতিক সময়
বাংলাদেশের পর্যটন খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী ব্রিটিশ সরকার: মন্ত্রী
১০ মিনিট আগে
বাংলাদেশ
বাংলাদেশের পর্যটন খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী ব্রিটিশ সরকার: মন্ত্রী
গাছ কাটা নিয়ন্ত্রণে কমিটি গঠন কেন নয়, জানতে চেয়ে রুল
২২ মিনিট আগে
বাংলাদেশ
গাছ কাটা নিয়ন্ত্রণে কমিটি গঠন কেন নয়, জানতে চেয়ে রুল
বিএনপির সমাবেশের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে ডিএমপি: খন্দকার মহিদ
২৩ মিনিট আগে
বাংলাদেশ
বিএনপির সমাবেশের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে ডিএমপি: খন্দকার মহিদ
বিশ্বকাপের অধিনায়কদের মধ্যে শান্তর পেছনে শুধু উগান্ডার অধিনায়ক
২৯ মিনিট আগে
খেলা
বিশ্বকাপের অধিনায়কদের মধ্যে শান্তর পেছনে শুধু উগান্ডার অধিনায়ক
বাবা-মায়ের সামনে নদীতে পড়া শিশুটির সন্ধান মেলেনি এখনও