• আজ ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভিজিএফের বরাদ্দের চালের অর্ধেক ভাগ,  প্রতিবাদে মহাসড়ক অবরোধ

| নিউজ রুম এডিটর ৬:৫৮ অপরাহ্ণ | জুন ১৩, ২০২৪ নাটোর, সারাদেশ

জেলা প্রতিনিধি, নাটোরঃ নাটোরের বড়াইগ্রামে ঈদুল আজহা উপলক্ষ্যে ভিজিএফের বরাদ্দের দাবিকৃত অর্ধেক চাল না পেয়ে শত শত মানুষের সামনে ইউপি চেয়ারম্যানকে মারপিট ও কার্যালয় ভাংচুর করেছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার দুপুরে মাঝগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটেছে।

 

পরে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে ঘটনাস্থল থেকে চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল আজাদ দুলালকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এদিকে, এ ঘটনার প্রতিবাদে এবং হামলাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে ভিজিএফের চাল নিতে আসা উপকারভোগীসহ স্থানীয়রা প্রায় পৌনে এক ঘন্টা মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার ঈদ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসাবে মাঝগাঁও ইউনিয়নের ২ হাজার ২৪৯ জন দুস্থ মানুষের মাঝে ১০ কেজি করে বিশেষ ভিজিএফের চাল বিতরণের নির্ধারিত দিন ছিল।

দুপুরে চাল বিতরণ শুরু করার আগ মুহুর্তে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা আতিকুর রহমান মাষ্টার, ওয়াজেদ আলী, আরিফ ও জীবন গাজীসহ ১৫-২০ জন ব্যক্তি ইউনিয়ন পরিষদে গিয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারীর নাম ব্যবহার করে বরাদ্দের ৫০ শতাংশ কার্ডের চাল দাবি করেন।

এ সময় সেসব চাল তাদের অনুসারীদের মাঝে নিজেরা বন্টন করবেন বলে দাবি করেন তারা। কিন্তু চেয়ারম্যান তা দিতে অস্বীকার করলে তারা কার্যালয়ের ভেতরে ঢুকে দরজা ভেতর থেকে আটকে দিয়ে চেয়ারম্যানকে এলোপাথাড়ি মারপিট করে রক্তাক্ত করে ও তার কার্যালয়ে ভাংচুর করে।

পরে তারা চেয়ারম্যানকে টেনে হিঁচড়ে বাইরে নিয়ে এসে শত শত লোকজনের সামনে দ্বিতীয় দফায় মারপিট করে। এ সময় তাকে উদ্ধারে এগিয়ে গেলে দুই ইউপি সদস্য আহত হন। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে চেয়ারম্যানকে উদ্ধার করে।

এদিকে, চেয়ারম্যানকে মারপিট ও কার্যালয় ভাংচুরের প্রতিবাদে দুপুর একটার দিকে বনপাড়া-হাটিকুমরুল-ঢাকা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষুদ্ধ উপকার ভোগীরা।

এ সময় অবরোধের দুই পাশেই শত শত যানবাহন আটকরা পড়ে। পরে দুপুর পৌনে দুইটার দিকে নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন বাবলু, বনপাড়া পৌর মেয়র কেএম জাকির হোসেন, ইউএনও লায়লা জান্নাতুল ফেরদৌস ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শরীফ আল রাজীব সেখানে উপস্থিত হয়ে হামলাকারীদের আটকের আশ্বাস দিলে অবরোধ তুলে নেয় বিক্ষুদ্ধরা।

মাঝগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল আজাদ দুলাল বলেন, এমপি সাহেবের (ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী) লোকজন কয়েকদিন আগে কিছু লোকের তালিকা দিয়েছে। সেসব লোকজনকে আমরা কার্ড দিয়েছি। আজ তারা আবার এসে চাউলের কার্ডের ৫০ পার্সেন্ট চাল দাবি করে। এভাবে চাল দেয়া সম্ভব না, একথা বলতেই আমাকে মারধর শুরু করে। আমি হাসপাতালে রয়েছি। এখান থেকে ফিরে থানায় অভিযোগ করবো।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শরীফ আল রাজীব বলেন, খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। আমি নিজেও ঘটনাস্থলে গিয়েছি। বর্তমানে মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। আহত চেয়ারম্যান থানায় এসেছেন, মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। আমরা ভিডিও ফুটেজ দেখে হামলাকারীদের চিহ্নিত করে দ্রুত আইনের আওতায় আাঃ হবে।

সংসদ সদস্য ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী বলেন, বাজেট অধিবেশন চলায় আমি ঢাকায় আছি।

সংবাদকর্মীদের মাধ্যমে বিষয়টি জেনেছি। এ ঘটনার সঙ্গে কারা জড়িত আমি জানি না। এ ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।