• আজ ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভগবানে বিচার করবে বাহে

| নিউজ রুম এডিটর ১০:২০ অপরাহ্ণ | জুন ২১, ২০২৪ লালমনিরহাট, সারাদেশ
 
 
আজিজুল ইসলাম বারী, লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ নিজের জমি থাকিয়াও মোর বের হওয়ার রাস্তা নাই। যারা মোর রাস্তা বন্ধ করছে, ভগবান তার রাস্তা বন্ধ করবে। পুলিশও বিচার করল না। হামার টাকা নাই তাই বিচারও নাই। ভগবানেই বাচার করবে  বাহে।
প্রভাবশালীর মার্কেট নির্মাণে বাড়ির যাতায়তের রাস্তা বন্ধ হওয়ায় বিচার চেয়ে না পেয়ে শুক্রবার (২১ জুন) সকালে এমনি আকুতি জানিয়েছেন বৃদ্ধা শান্তি বালা (৭০)।
শান্তি বালা লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার ভেলাবাড়ি বাজার বাংলালিংক টাওয়ার এলাকার মৃত হরিচরন বাবুর স্ত্রী।
থানায় দায়ের করা অভিযোগে জানা গেছে, স্বামী হরিচরন বাবু মৃত্যুর পুর্বে বসত ভিটায় স্ত্রী শান্তি বালার নামে ৫ শতাংশ এবং তার ছোট ছেলে সুজন রায়ের নামে ৫ শতাংশ জমি রেজিস্ট্রি করে দেন। ছোট ছেলে সেই জমির সাড়ে ৩ শতাংশ প্রতিবেশি জবান ক্বারীর ছেলে জয়নাল হক ও আয়নাল হকের নিটক বিক্রি করেন। দলিলে রাস্তা বাবদ ৬ ফিট জমি রাখার কথা থাকলেও পেশিশক্তির জোরে মানছে না প্রভাবশালী আয়নাল হক ও জয়নালরা। সেই জমি দখলে নিতে গত ১৭ জুন ঈদের দিনে হঠাৎ দলবল নিয়ে বৃদ্ধা শান্তি বালা ও তার সন্তানদের যাতায়তের রাস্তায় মার্কেট নির্মাণের চেষ্টা করেন আয়নাল হক গংরা।
বৃদ্ধা শান্তি বালা বাঁধা দিতে গেলে তাকে মেরে ফেলার হৃমকী দেন। পরে বৃদ্ধা শান্তি বালা স্থানীয়দের সহায়তায় বিচার চেয়ে আদিতমারী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ আমলে নিয়ে থানায় আপোষ মিমাংশার চেষ্টা চালায় পুলিশ। কিন্তু কোন ভাবেই বৃদ্ধার যাতায়তের ৬ ফিট রাস্তা দিতে রাজি নয় আয়নাল জয়নালরা। নিরুপায় বৃদ্ধা শান্তি বালা নিজের জমির উপর নিজের যাতায়তের রাস্তার জন্য থানা পুলিশ আর মাতব্বরদের দুয়ারে দুয়ারে নিস্ফল ঘুরছেন।
বৃদ্ধা শান্তি বালার ছেলে সুজন রায় বলেন, আমাদের ৬ ফিট রেখে দলিল দেয়া হয়েছে। মুলত আয়নাল আমাদেরকে বাড়ি ছাড়া করতে রাস্তা বন্ধ করেছে। আমরা বাড়ি ছাড়া হলে বাকী জমিটুকুও তার কাছেই বিক্রি করতে হবে। এই কৌশলে তারা আমাদের রাস্তা বন্ধ করে মার্কেট নির্মাণের চেষ্টা করছে।
বৃদ্ধা শান্তি বালা বলেন, আমরা গরিব মানুষ আমাদের কথা কেউ শুনে না। আমাদের তাড়িয়ে দিলে বাকী জমি টুকু পাওয়ার লোভে আমাদের রাস্তা বন্ধ করেছে বাহে। যেখানে যাই সেখানেই তারা টাকা দিয়ে মুখ বন্ধ করে দেয়। তাই গরিবের বিচার নেই। গরিবের বিচার ভগবানই করবে।
অভিযুক্ত আয়নাল হক বলেন, জমি জবর দখল নয়। ক্রয় করেই দলিল মুলে মার্কেট নির্মাণ করছি। সেই কাজে তারা বাঁধা দিয়েছে। তারা পিছনে বাড়ি রেখে সামনে বিক্রি করেছে যা দলিলে উল্লেখ রয়েছে। তবে কয়েক ঘন্টা বসিয়ে রেখেও দলিলটি এ প্রতিবেদককে দেখাতে পারেননি তিনি।
থানায় বৈঠকের বরাত দিয়ে ভেলাবাড়ি ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য আফছার উদ্দিন বলেন, জমি বিক্রির সময় এবং দলিলের বর্ণনা অনুযায়ী ৬ফিট রাস্তা দেয়ার কথা রয়েছে। কিন্তু আয়নাল হকরা তা মানছে না। গায়ের জোরে দখলে নিতে চেষ্টা করছে। থানায় বৈঠক হলেও পুলিশের কথাও মানতে নারাজ তারা। এটা গরিবের উপর সবলের অত্যাচার।
আদিতমারী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদ উন নবী বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।