• আজ ৩রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

দুই দিনে উদ্ধার হলো বঙ্গোপসাগরে ডুবে যাওয়া সাত জেলের লাশ

| নিউজ রুম এডিটর ৮:৩২ অপরাহ্ণ | আগস্ট ২১, ২০২২ লিড নিউজ, সারাদেশ

বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরার একটি ট্রলারডুবির ঘটনায় দুদিনে নিখোঁজ সাত জেলের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল শনিবার কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার সোনাদিয়া চ্যানেল থেকে দুজনের লাশ উদ্ধারের পর আজ রোববার আরও পাঁচজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ট্রলারডুবির ঘটনায় এখনো এক জেলে নিখোঁজ।

মৃত জেলেদের পরিবার ও স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার কক্সবাজার সদর উপজেলার খুরুশকুল ইউনিয়নের জাকির হোসেন নামের এক ব্যক্তির একটি ট্রলার নিয়ে বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরতে যান ১৯ জন জেলে। প্রতিকূল আবহাওয়ার কারণে সাগর উত্তাল হলে শুক্রবার ট্রলারটি নিয়ে মাঝি-মাল্লারা উপকূলের দিকে ফিরে আসছিলেন। ফেরার পথে দুপুরে উপকূল থেকে প্রায় চার নটিক্যাল মাইল দূরে ফাড়ারচর এলাকায় উত্তাল ঢেউয়ের কবলে পড়ে ট্রলারটি ডুবে যায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে আট জেলেকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করেন কোস্টগার্ডের সদস্যরা। পরে সাঁতার কেটে আরেকটি ফিশিং ট্রলারে উঠে তিন জেলে জীবিত অবস্থায় তীরে আসেন। নিখোঁজ হন আট জেলে।

আজ সকালে বঙ্গোপসাগরে নাজিরার টেক পয়েন্ট থেকে স্থানীয়রা আজিজুল হক, হোছেন আহমেদ ও নুরুল আবছার নামে তিন জেলের লাশ উদ্ধার করেন। বিকেল সাড়ে চারটার দিকে উপকূলে ভাসমান অবস্থায় থাকা আনোয়ার হোসেন ও নুরুল ইসলামের লাশ উদ্ধার করা হয়। গতকাল বিকেলে মহেশখালীর সোনাদিয়া চ্যানেল থেকে উদ্ধার করা হয় মোহাম্মদ তৈয়ব ও সাইফুল ইসলাম নামের আরও দুই জেলের লাশ।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) মো. সেলিম উদ্দিন বলেন, শুক্রবার দুপুরে সাগরে ট্রলারডুবির ঘটনায় আট জেলে নিখোঁজ হন। এর মধ্যে শনিবার ও রোববার বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত সাত জেলের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বর্তমানে নিখোঁজ আছেন খোরশেদ আলম নামের এক জেলে। তিনি আরও বলেন, সাগরে অতিরিক্ত বোট নামিয়ে নিখোঁজ জেলের সন্ধান চলছে।