• আজ ৫ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নড়াইলে নৈশ প্রহরী হত্যা প্রধান দুই আসামি গ্রেফতার

| নিউজ রুম এডিটর ৩:০৭ অপরাহ্ণ | জুলাই ৬, ২০২৩ আইন ও আদালত

উজ্জ্বল রায়, নড়াইল থেকে: নড়াইলে নৈশ প্রহরী হত্যা প্রধান দুই আসামি গ্রেফতার। নড়াইল লোহাগড়া থানার নোয়াগ্রাম ইউনিয়নের রায়গ্রামে ভাগ্নের রডের আঘাতে মামা মো. সিরাজুল ইসলাম মোল্লা (৫৫) হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছে।

নিহত সিরাজুল ইসলাম ওই গ্রামের মৃত মোকাদ্দেস মোল্লার ছেলে। উজ্জ্বল রায়, নড়াইল থেকে জানান, সোমবার (৩ জুলাই) রাতে নিহতের নিজ বাড়ির পাশে হত্যাকাণ্ডের এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় নিহতে স্ত্রী বাদী হয়ে (৫ জুলাই) ১৫ জনসহ অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করে লোহাগড়া থানায় একটি এজাহার দায়ের করে। যার প্রেক্ষিতে নড়াইল জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার মহোদয়ের নির্দেশনায় মামলা রুজুর পর পরই (৬ জুলাই) লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ নাসির উদ্দিন এবং জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) এর পুলিশ পরিদর্শক সাজেদুল ইসলাম এর তত্ত্বাবধানে পুলিশ পরিদর্শক জামিল কবির ও এসআই (নিঃ) অপু মিত্র, সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন সেল এর এসআই (নিঃ) আলী হোসেন এবং লোহাগড়া থানার এসআই (নিঃ) অমিত ও এসআই (নিঃ) মামুন সঙ্গীয় ফোর্সসহ যৌথ অভিযান চালিয়ে প্রধান দুই আসামিকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

গ্রেফতারকৃত প্রধান দুই আসামি হলেন-মোঃ শান্ত শেখ (২২) ও মোঃ সবুজ শেখ (৩০)। তারা লোহাগড়া উপজেলার রায়গ্রামের মৃত গফফার শেখের ছেলে।
অনুসন্ধানে জানা যায়, নৈশ প্রহরী সিরাজুল ইসলামের সাথে আসামিদের দীর্ঘদিন যাবৎ সামাজিক বিরোধ ছিল। পূর্বের কলহের জের ধরে ঘটনার রাতে আসামিরা পূর্বপরিকল্পিতভাবে ভিকটিমের বাড়ির পাশে দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে ওত পেতে থাকে। ভিকটিম সিরাজুল কর্মস্থলে যাওয়ার সময় আসামিরা তার উপর হামলা করে।

এতে সে গুরুতর রক্তাক্ত জখম হয়। সংবাদ প্রাপ্তির সাথে সাথে লোহাগড়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় আহত মো: সিরাজুল ইসলামকে চিকিৎসার জন্য লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করে।

পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।