• আজ ২রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শুরু হলো ‘নেক্সট ষ্টার বাংলাদেশ ২০২২’

| নিউজ রুম এডিটর ১২:১৩ পূর্বাহ্ণ | মার্চ ১৬, ২০২২ বিনোদন, লিড নিউজ

করোনাকালে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছে এসএস নুর মাল্টিমিডিয়া প্রেজেন্টস, নেক্সট ষ্টার বাংলাদেশ ২০২২’ প্রতিযোগিতার কার্যক্রম। প্রথমবারের মতো এ আয়োজন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।আর এই ‘নেক্সট ষ্টার বাংলাদেশ ২০২২’ এর পুরো ইভেন্ট এর দায়িত্বে থাকছেন “ইলিগ্যান্ট ক্রিয়েশন“।

করোনাভাইরাসের কারণে ঢাকার বাইরে গিয়ে অডিশন নেওয়া সম্ভব হয়নি। এজন্য ঢাকার একটি নামি হোটেলে সরাসরি অডিশন ও অনলাইন অডিশনের মাধ্যমে প্রতিযোগী বাছাই করা হয়। প্রথম ধাপে অডিশন শেষে এখন ছেলে ১৭ জন এবং মেয়ে ১৫ জন প্রতিযোগী ইয়েস কার্ড পেয়েছেন।

প্রথম অংশে বিচারক হিসেবে ছিলেন বুলবুল টুম্পা (ফ্যাশন কোরিওগ্রাফার), লিনা খান
(ফ্যাশন কোরিওগ্রাফার), অপূর্ব চৌধুরী (ডান্স কোরিওগ্রাফার), জুবায়ের খান (মিস্টার বাংলাদেশ উইনার) এবং আরো ছিলেন অ্যাডাল্ফ খান,কে এম সাকিব ও আদি অভি(ফ্যাশন কোরিওগ্রাফার) আশফাক করিম, মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর করিম(ড্রেস ডিজাইনার), আনিকা খান(মেকওভার), মোস্তফা তারেক হাদী (সি ই ও, ট্রিও ভিজুয়ালস ফটোগ্রাফি পার্টনার)

জানা যায়, সেমিফাইনাল ও চূড়ান্ত পর্বে বিচারকদের তালিকায় থাকবে চমক।

এ প্রসঙ্গে এসএস নুর মাল্টিমিডিয়া আমাদেরকে বলেন,অনেক আগেই ‘নেক্সট ষ্টার বাংলাদেশ ২০২২’ হওয়ার কথা ছিল কিন্তু দেশে করণামহামারীর কারণে আমরা ঠিকঠাক ভাবে শুরু করতে পারিনি।
তবে এবার আমরা শুরু করেছি।
সব অনলাইনে প্রতিযোগিতা শুরু করেছি। সম্প্রতি প্রথম অডিশন রাউন্ড সম্পন্ন করেছি। তাদের দিয়ে বিভিন্ন ফটোশুট, ভিডিও শুটসহ বিভিন্ন ব্র্যান্ডের শুট করা হবে।’

‘নেক্সট ষ্টার বাংলাদেশ ২০২২’ নিয়ে বুলবুল টুম্পা বলেন, ‘ নতুনদের জন্য এরকম একটা প্ল্যাটফর্ম করে দেবার জন্য আমি ধন্যবাদ জানাচ্ছি এসএস নুর মাল্টিমিডিয়াকে । কারণ নতুন মুখদের জন্য এরকম একটা প্ল্যাটফর্ম দেবার জন্যও একটা সাহস লাগে৷ তাই মিডিয়াতে কাজ করার আগে শেখানো বা উৎসাহ দেয়াটা অনেক বড় বিষয়। আমাদের সবার উচিত এই উদ্যোগটার সাথে থাকার এবং সংশ্লিষ্ট সকলকে সহযোগিতা দেবার।’

‘নেক্সট ষ্টার বাংলাদেশ ২০২২’ নিয়ে লিনা খান বলেন, ‘মিডিয়াতে নতুন মডেল আসা এবং তাদের তৈরি করে নিয়ে আসা এটা খুবই ভালো একটি উদ্যোগ। তাই আমি ধন্যবাদ জানাতে চাই এস এস নুর মাল্টিমিডিয়া এবং এর সাথে সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি এরকম সুন্দর একটা প্রোগ্রাম উপহার দেবার জন্য।’

এছাড়া এ প্রসঙ্গে জনপ্রিয় ড্যান্স কোরিওগ্রাফার অপূর্ব চৌধুরী, বলেন ‘এখন ফ্যাশন ইন্ডাস্ট্রি অনেক সম্প্রসারিত হয়েছে। কিন্তু দেশে ভালো মডেলের সংখ্যা খুব কম। এক দিনে একাধিক শো পড়লে ভালোমানের মডেল খুঁজে পাই না। এ জন্যই চেষ্টা করছি, কিছু ছেলেমেয়েকে হাতে-কলমে শিখিয়ে তৈরি করতে। যাতে তারা নিজ যোগ্যতায় কাজ করতে পারে শোবিজে।’

এরই মধ্যে ১৭ তারিখ অনুষ্ঠিত হবে দ্বিতীয় ধাপ অডিশন রাউন্ড ।