• আজ ৬ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিরাজদিখানে শিক্ষা সনদ বিতরণে অর্থ আদায়ের অভিযোগ কলেজ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে!

| নিউজ রুম এডিটর ৮:৪১ অপরাহ্ণ | মে ১৪, ২০২২ মুন্সীগঞ্জ, সারাদেশ

মোহাম্মদ রোমান হাওলাদার: মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানে শিক্ষা সনদ বিতরণে অর্থ আদায়ের অভিযোগ উঠেছে আধা সরকারী কলেজ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে। উপজেলার মালখানগর ইউনিয়নে অবস্থিত মালখানগর ডিগ্রি কলেজের এইচএসসি-২০২১ সালের একাধিক শিক্ষার্থীর কাছ থেকে এইচএসসি সনদ বাবদ জন প্রতি ৩ শত টাকা করে আদায় করা হচ্ছে মর্মে অভিযোগ তোলা হয়। স্থানীয় ও কলেজ সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি মালখানগর ডিগ্রি কলেজের ২০২১ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের সনদ বিতরণ কার্যক্রম শুরু করেছে কলেজটির কর্তৃপক্ষ।

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের নিয়ম অনুযায়ী সনদ বিতরণে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কোন প্রকার ফি কিংবা নগদ অর্থ আদায়ের নিয়ম না থাকলেও নিয়ম নীতির কোন প্রকার তোয়াক্কা না করে কলেজ কর্তৃপক্ষ সনদ গ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে জন প্রতি ৩ শত টাকা করে বাধ্যতামূলক বেতন আদায়ের রশিদের মাধ্যমে আদায় করে নিচ্ছেন। এর আগে ২০২১ এইচএসসি পরীক্ষার্থীদে কাছ থেকে মিষ্টি খাওয়ার খরচ বাবদ বাধ্যতামূলক জন প্রতি ১ শত টাকা করে কোন প্রকার রশিদ ছাড়াই আদায় করেন মালখানগর কলেজ কর্তৃপক্ষ। মালখানগর ডিগ্রি কলেজের এইচএসসি ২০২১ সালের একাধিক শিক্ষার্থী বলেন, কলেজের অফিস সহকারী বাধ্যতামূলক আমাদের কাছ থেকে বেতন আদায়ের রশিদের মাধমে ৩ শ টাকা করে নিয়েছে। সার্টিফিকেট দিয়ে টাকা নেওয়ারতো কোন নিয়ম নাই।

পরীক্ষার আগে আমরা চলে যাবো বলে তারা আমাদের প্রায ৫০ জনের কাছ থেকে ১ শ টাকা করে নিয়েছে মিষ্টি খাওয়ার জন্য। সরকারি নিয়ম অনুযায়ী সার্টিফিকেট দিয়ে টাকা নেওয়ার নিয়ম নাই। এ ব্যপার মালখানগর ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ শফিউদ্দিন হাওলাদার বলেন, আমরা সার্টিফিকেট দিয়ে কোন টাকা নেই নি। প্রসংসা পত্রের জন্য টাকা নেওয়া হয়েছে। সনদ বিতরন করে টাকা নেওয়ার বৈধতার ব্যপারে জানতে চাইলে তিনি কোন সদুত্তর দিতে পারেন নি।মালখানগর ডিগ্রি কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ডক্টর নূহ-উল আলম লেলিন অসুস্থ্য থাকায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কাজী ওয়াহিদ মোহম্মদ সালেহ বলেন, সনদ দিয়ে টাকা নেওয়ার নিয়ম নেই। সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।