• আজ ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নারী সেজে ‘অশ্লীল কাজ’, কটাক্ষের মুখে সুনীল

| নিউজ রুম এডিটর ৮:৩৪ অপরাহ্ণ | মে ১৭, ২০২৪ বিনোদন

‘অশ্লীল কৌতুক’ বলে অ্যাখ্যা করা হয়েছে ‘দ্য গ্রেট ইন্ডিয়ান কপিল শো’-তে ‘দাফলি’ চরিত্রে অভিনয় করা সুনীল গ্রোভারকে। আর এ অ্যাখ্যা দিয়েছেন ভারতীয় আরেক অভিনেতা সুনীল পাল। তিনি মনে করেন, এমন অশ্লীল কৌতুকের মাধ্যমে নারীদের খাটো করা হচ্ছে।

‘দ্য গ্রেট ইন্ডিয়ান কপিল শো’-তে ‘দাফলি’ চরিত্রে অভিনয় করা সুনীল গ্রোভারকে চেনেন না, এমন মানুষ কমই আছেন। এ চরিত্রটি স্টেজে এমন সাজসজ্জা আর অঙ্গভঙ্গি করে যে হাসি আটকে রাখা দায় হয়ে পড়ে দর্শকদের।

ছেলে হয়েও মেয়েদের মতো সুনীলের বাচন ও অঙ্গভঙ্গি দৃষ্টি কাড়ে সবার। তবে বিষয়টিতে নেতিবাচক প্রভাবও রয়েছে বলে মনে করেন ভারতীয় আরেক কৌতুকাভিনেতা সুনীল পাল।

কারণ ব্যাখ্যা করে সুনীল পাল বলেন, সুনীল গ্রোভার পর্দায় যেভাবে নিজেকে উপস্থাপন করছেন সেটিকে মোটেই ভালো চোখে দেখা যায় না। এটা এক ধরনের ‘অশ্লীল কৌতুক’।

সুনীল পাল আরও বলেন, শোতে সুনীল গ্রোভারকে খুব একঘেয়ে লাগে। সেই একই জিনিস, কোনো নতুনত্ব নেই! বারবার নারীর সাজে অশ্লীল কথাবার্তা এবং অভিনেতাদের কোলে বসে পড়া দেখে প্রায়ই ঘৃণার উদ্রেক হয়।

শুধু অভিনয়ের গুণগত মান নিয়ে কটাক্ষেই থেমে থাকেননি সুনীল পাল। নারীদের প্রতি অশ্রদ্ধার বিরোধিতাও করেছেন তিনি। ‘নারীদের পক্ষে এটা কি আদৌ সম্মানের?’ এমন প্রশ্নও তুলেছেন সুনীল পাল।

শুধু সুনীল গ্রোভার নয়, কিকু শারদা, কৃষ্ণা অভিষেকের প্রসঙ্গও টানেন সুনীল পাল। তার ভাষ্যমতে, একজন পুরুষকে নারীর বেশে দেখতে যেমনটা অশ্লীল, তেমনি তাদের মধ্যে এনার্জিরও অভাব রয়েছে। মনে হচ্ছে, গত পরশুর রান্না করা বিরিয়ানি আজ খেতে দেয়া হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, সুনীল গ্রোভার এর আগে কমেডি নাইটস উইথ কপিল-এ গুথির চরিত্রে অভিনয় করেছেন। সেখানে তাকে ড. মশুর গুলাটির চরিত্রে দেখা গেছে। তবে শোর নতুন ফরম্যাটে তিনি এখন দাফলির চরিত্রে পর্দায় ধরা দিচ্ছেন।