• আজ ৩০শে চৈত্র, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ভেবেছিলাম বাড়তি টাকা নেব পাঁচটা চুমুর জন্য: নার্গিস

| নিউজ রুম এডিটর ৬:৪৫ অপরাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২২ বিনোদন

বলিউডের ‘সিরিয়াল কিসার’ হিসেবে খ্যাত অভিনেতা ইমরান হাশমি। কিন্তু ভারতীয় কিসার এই অভিনেতাকে নিয়ে মন্তব্য করলেন এবার নার্গিস ফকরি। ইমরানের সাথে নার্গিস ফকরির নতুন একটি সিনেমার শুটিং হচ্ছিল। সেখানে একটি চুমুর দৃশ্যে অভিনয় করেন ফকরি। ‘আজহার’ সিনেমার শ্যুট চলার সময় নার্গিস ফকরির সঙ্গে চুমু খাওয়ার দৃশ্য। নার্গিসকে চুম্বনরত ইমরান পরিচালক কাট বলার পরও থামেননি। কিন্তু এই সিনেমার চুক্তিপত্রে চুমুর কোন কথা ছিল না। তবে বাড়তি টাকা নেওয়ার জন্যই ইমরানের সাথে চুমুর দৃশ্যে রাজিন হন নার্গিস।

অতীতের ঘটনার উল্লেখ করে মুম্বইয়ের সংবাদমাধ্যমকে নার্গিস ফকরি বলেন, চুমুর দৃশ্য শেষ হওয়ার পর ক্যামেরা ক্লোজ করেন পরিচালক। এরপরও ইমরান চুমু খেয়ে যাচ্ছিলেন। ফকরি বলেন, আমাদের ছবি ‘আজহার’ এর পোস্টারের কথা ভাবুন। সবার মনে পড়বে পোস্টারের কথা। ইমরানের নকল গোঁফ ছিল। ওই নকল গোঁফ যে অন্য কারও গোপনাঙ্গের চুল নয়, সে বিষয়ে আমি তো নিশ্চিত ছিলাম না! আমি কিছুতেই তাই ইমরানকে চুমু খেতে পারছিলাম না। আর জানি না কেন শ্যুটিং-এ ইমরান আমায় একের পর এক চুমু খেয়ে যাচ্ছিল। আমার সে দিন খুব অস্বস্তি হয়েছিল।’’

নার্গিস জানান, আজহার সিনেমায় তার এত চুম্বন দৃশ্য থাকবে তা তিনি নিজেই জানতেন না। একবার নয় দুইবার নয়, পাঁচ বার ঠোঁটে ঠোঁট রাখতে হবে ইমরানের সঙ্গে। কিন্তু এই অভিনেত্রী অভিযোগ আনেন পরিচালকের বিরুদ্ধে । সিনেমাটি চুক্তিপত্রের কোনো চুমু খাওয়ার বিষয়ে কোনো কথা ছিল না। আমি তো ভেবেছিলাম বাড়তি টাকা নেব পাঁচটা চুমুর জন্যে। আমি জানতাম, ইমরান মনে মনে খুব খুশি হয়েছে। যদিও মুখে বলেছে, ও কিছুই জানত না। আমি জানতাম ও মিথ্যে বলছে।”

২০০৩ সালে ‘ফুটপাথ’ ছবির মাধ্যমে বলিউডে অভিষেক হয় ইমরান হাশমির। পরের বছর ২০০৪ সালে ‘মার্ডার’ ছবি দিয়ে আলোড়ন তোলেন ভারতের দর্শকের কাছে। প্রায় দেড় যুগের অভিনয় ক্যারিয়ারে এই অভিনেতাকে সবচেয়ে বেশি চুম্বন দৃশ্যে দেখা গেছে।

মল্লিকা শেরাওয়াত, জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ, তনুশ্রী দত্ত, নার্গিস ফকরি-সহ বহু নামী নায়িকার সাথে চুম্বন দৃশ্যে দেখা গেছে ইমরানকে।