• আজ ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যে কারণে প্ল্যাকার্ড হাতে ১ মাস দাঁড়িয়ে থাকতে হবে তাকে

| নিউজ রুম এডিটর ৯:১৮ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ১০, ২০২২ আইন ও আদালত, লিড নিউজ

ঠাকুরগাঁওয়ে মাদক মামলায় এক আসামি ব্যতিক্রমধর্মী সাজা ভোগ করছেন। ৫২ বছর বয়সী দণ্ডপ্রাপ্ত মো. আব্দুল্লাহকে একমাসের জন্য মাদক সচেতনতা বিষয়ক প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে আদালত চত্বরে দাঁড়িয়ে থাকার শাস্তি প্রদান করা হয়।

রোববার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ কাজী দেলোয়ার হোসেন এ রায় দেন। গরিব কৃষক ও ২ মেয়ে পবিত্র কোরআনের হাফেজ হওয়ায় সাজা পরিবর্তন করে এ রায় দেন তিনি।

এক বছরের সাজা ও ৩০ হাজার টাকা দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিকে কারাগারে না পাঠিয়ে পরিবারের সঙ্গে থেকে সংশোধনের সুযোগ দেয়া হয়েছে। তবে এ জন্য তাকে প্রতিদিন ১ ঘণ্টা করে ১ মাস পর্যন্ত আদালত চত্বরে ‘মাদক ব্যবসার জন্য আমি দুঃখিত, লজ্জিত, অনুতপ্ত ও ক্ষমাপ্রার্থী’ ও ‘মাদক দেশ ও দেশের শত্রু মাদক পরিহার করুন’ এই লেখা সম্বলিত একটি প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে হবে।

রায় ঘোষণার দিন দুপুরেই দেখা যায়, ঠাকুরগাঁও জেলা ও দায়রা জজ আদালত প্রাঙ্গণে প্ল্যাকার্ড হাতে দাঁড়িয়ে ছিলেন আব্দুল্লাহ।

রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে আসামিপক্ষের আইনজীবী মো. জাকির হোসেন জানান, এর আগে বিচারক আসামি আব্দুল্লাহকে দোষী সাবস্থ্য করে ১ বছরের কারাদণ্ড ও ৩০ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ প্রদান করেন। পরে আদালতের দৃষ্টি আকর্ষণ করে জানাই যে আব্দুল্লাহ একজন গরিব কৃষক ও তার ২ মেয়ে পবিত্র কোরআনের হাফেজ। মাদক ব্যবসার জন্য তিনি লজ্জিত ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। পরে আদালত পূর্বের রায় পরিবর্তন করে আব্দুল্লাহকে এ রায় প্রদান করেন।

সাজাপ্রাপ্ত আব্দুল্লাহর বাড়ি জেলার রানীশংকৈল উপজেলার রাউৎ নগর গ্রামে। ২০১৫ সালের একটি ও ২০১৬ সালের দুটি মাদক মামলার আসামি তিনি।