• আজ ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আদিবাসী যুবককে পিটিয়ে উল্টো মামলা যুবলীগ নেতার

| নিউজ রুম এডিটর ৪:৫১ অপরাহ্ণ | জুন ২, ২০২২ ঠাকুরগাঁও, সারাদেশ

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁও পৌরসভার বাসিন্দা লুইস টপ্য নামের এক আদিবাসী যুবককে বেধড়ক পিটিয়ে উল্টো মামলা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ দত্ত সমীরের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় সদর থানায় মামলা দায়ের করতে গেলে মামলা গ্রহন না করায় হামলার শিকার লুইসের বাবা জুলিউস টপ্য বাদী হয়ে অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ দত্ত সমীরসহ ১০ জনের নাম উল্লেখ করে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন ।মঙ্গলবার (৩১ মে) দুপুরে অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল আদালতের বিচারক এস. রমেশ কুমার ডাগা অভিযোগটি আমলে নিয়ে এফআইআরভুক্ত করতে সদর থানার ওসিকে নির্দেশ দেন।

বাদীর অভিযোগ সূত্রে জানা যায়,এ বছরের ১৭ ই এপ্রিল ইস্টার সানডের দিন পৌর-শহরের গোবিন্দনগর এলাকায় যুবলীগ নেতা দেবাশীষ দত্ত সমীরের নির্দেশে ঠাকুরগাঁও পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলর বাবুল হোসেন, ইমরান, জনি, রাজা, পুলক, তরিকুল ইসলাম, ইসমাইল হোসেন, মহসীন ও প্রদীপ সরকারসহ এক দল সন্ত্রাসী হত্যার উদ্দেশ্যে লুইস টপ্যের উপর হামলা চালায়। পরে লুইসকে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে হামলাকারীরা সেখানে গিয়ে হুমকি ধামকি দিয়ে চিকিৎসাপত্র কেড়ে নেয়।

এ ঘটনায় আদিবাসী সম্প্রদায়ের লোকজন সদর থানায় মামলা দিতে গেলে থানা কর্তৃপক্ষ মামলা গ্রহণ করেনি, উল্টো হামলায় অংশ নেয়া তরিকুল ইসলাম বিপু বাদী হয়ে অভিযোগকারী ও কিছু আদিবাসী যুবকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে।

এ ঘটনার পর সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে ২৪ এপ্রিল স্থানীয় আদিবাসীরা জড়িতদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ, মানববন্ধন ও জেলা প্রশাসক বরাবর স্বারকলিপি দিয়ে প্রশাসনের সহযোগিতা চান।

জাতীয় আদিবাসী পরিষদ ঠাকুরগাঁও জেলা শাখার সভাপতি ক্যাকব খালকো জানান, জেলা যুবলীগ নেতা সমীর দত্ত ও পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলর বাবুল হোসেনসহ একটি মহল আদিবাসীদের জমির ভুয়া দলিল করে ও ভয়-ভীতি দেখিয়ে তাদের জমি জবরদখল করে আসছে। এদের বিরুদ্ধে স্থানীয় প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কোন পদক্ষেপ নেন না। সদর থানা পুলিশ নির্যাতনের শিকার আদিবাসীদের মামলা না নিয়ে উল্টো তাদের বিরুদ্ধে মামলা গ্রহণ করায় ন্যায়বিচারের আশায় আদালতের শরণাপন্ন হয়েছি বলেও জানান তিনি।

অন্যদিকে অভিযোগ অস্বীকার করে ঠাকুরগাঁও যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ দত্ত সমীর জানান, এটা সম্পূর্ণ মিথ্যা বানোয়াট।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার অফিসার ইনচার্জ তানভিরুল ইসলাম জানান, এরকম কোন ঘটনায় আদিবাসীদের কেউ থানায় অভিযোগ বা মামলা দিতে আসেননি।