• আজ ১১ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তানোরে আওয়ামী লীগের সংবাদ সম্মেলন

| নিউজ রুম এডিটর ১:৩৮ অপরাহ্ণ | আগস্ট ৩, ২০২৩ আওয়ামী লীগ, রাজনীতি

রাজশাহী-১ আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সাংসদ আলহাজ্ব ওমর ফারুক চৌধুরীকে নিয়ে মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যেপ্রণোদিত খবর প্রকাশের প্রতিবাদে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করা হয়েছে। জানা গেছে, গত ২ আগষ্ট বুধবার উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাইনুল ইসলাম স্বপনের সভাপতিত্বে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না।

অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ প্রদিপ সরকার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আবু বাক্কার, কামারগাঁ ইউপি চেয়ারম্যান ফজলে রাব্বি ফরহাদ, পাঁচন্দর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন, বাধাইড় ইউপি চেয়ারম্যান আতাউর রহমান,চাঁন্দুড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্য-নির্বাহী কমিটির সদস্য আবুল বাসার সুজন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্পাদক রামিল হাসান সুইট ও কলমা ইউপি সভাপতি তানভির রেজা প্রমুখ। এছাড়াও আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের প্রতিটি ইউনিটের নেতাকর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তাগণ সাংসদ আলহাজ্ব ওমর ফারুক চৌধুরীকে নিয়ে মিথ্যা, বানোয়াট,ভিত্তিহীন, মানহানিকর, উদ্দেশ্যেপ্রণোদিত খবরের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, রাজনৈতিক অঙ্গনে এমপি ফারুক চৌধুরী নিজেই একটা ব্র্যান্ড। অন্যরা রাজনীতি করে যেখানে পৌঁছাতে চাই, সেখান থেকে ফারুক চৌধুরীর রাজনীতির শুরু। রাজশাহী-১ আসনে তিনবারের সাংসদ ও দুই বারের কেবিনেট মন্ত্রী বিএনপির অপ্রতিদন্দি নেতৃত্ব প্রয়াত ব্যারিষ্টার আমিনুল হকে পরাজিত করে সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন ফারুক চৌধুরী।তিনি জামায়াত-বিএনপির দুর্গ তছনছ করে আওয়ামী লীগের আঁতুড় ঘরে পরিনত করেছেন। তিনি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি থাকার সময়ে তার নেতৃত্বে প্রথম বারের মতো রাজশাহীর প্রতিটি আসনে আওয়ামী লীগের সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন।

তিনি একটানা তিনবার সাংসদ নির্বাচিত হয়ে তার রাজনৈতিক দুরদর্শিতা ও জনপ্রিয়তা প্রমাণ করেছেন। এমপি ফারুক চৌধুরী শহীদ পরিবারের সন্তান, দীর্ঘ প্রায় তিন দশকের রাজনৈতিক জীবনের অধিকারী। দলের ভিতর এবং বাইরের নানা ষড়যন্ত্র, অপপ্রচার, প্রতিহিংসা ও গুজবের বহু অন্ধকার গলিতেও তিনি পথ হারাননি এবং গতানুগতিক রাজনীতির স্রোতে গা ভাসিয়ে দেননি।নিজস্ব,স্বকীয়তা ব্যক্তিত্ব সম্পন্ন অমায়িক ব্যবহার ও প্রচণ্ড সাহসী নেতৃত্বের লৌহমানব এই মানুষটি ছাত্র রাজনীতির সীমানা অতিক্রম করে ধীরে ধীরে গণমানুষের আকাঙ্ক্ষার পুরুষে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। তার প্রতি সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষের হৃদয় নিংড়ানো ভালোবাসার যে বহিঃপ্রকাশ তাতে তিনি না চাইলেও তানোর-গোদাগাড়ীর মানুষ তাকেই তাদের নেতা হিসেবে বেছে নিয়েছে, এখানে তার কোনো বিকল্প নাই।

কারণ সাধারণ মানুষের নিখাদ ভালবাসার চেয়ে বড় কোন শক্তি নাই। অথচ এমন একজন দায়িত্বশীল রাজনৈতিক নেতার বিরুদ্ধে বার বার মিথ্যচার করা হচ্ছে।সম্প্রতি দ্বাদ্বশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্ব মুহুর্ত থেকে দেশের একটি বহুল প্রচারিত দৈনিক তাদের রাজশাহী সংবাদদাতার বরাদ দিয়ে পরিকল্পিত ও উদ্দেশ্যেপ্রণোদিত হয়ে গোদাগাড়ীতে যুবলীগের কমিটি ঘোষণা করতে গিয়ে দৌড়ে পালিয়ে আত্মরক্ষা করেছেন সাংসদ ফারুক চৌধুরী শিরোনামে মিথ্যা ও বানোয়াট খবর প্রকাশ করেছে। এতে ওই দৈনিক ও তার রাজশাহী সংবাদদাতার গ্রহণযোগ্যতা ও দায়িত্বশীলতা নিয়ে জনমনে প্রশ্ন উঠেছে বইছে সমালোচনার ঝড়।

একটি দায়িত্বশীল দৈনিক কিভাবে কর্মী-জনবান্ধব একজন এমপির বিরুদ্ধে একের পর এক এমন মিথ্যা ও বানোয়াট খবর প্রকাশ করতে পারে সেটি নিয়েও সচেতন মহলে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। একটি সুত্র জানায়, জামায়াত-বিএনপি এখানে ফারুক চৌধুরীকে পরাজিত করে রাজনীতি করার কথা স্বপ্নেও ভাবেন না, সেটা তারা পারবেন না। তাদের টার্গেট আওয়ামী লীগ নয় যে কোনো মুল্য ফারুক চৌধুরীকে রাজনীতি থেকে সরানো। তাই তারা অবিনব কৌশল অবলম্বন করছেন। তারা আওয়ামী লীগের কিছু জনবিচ্ছিন্ন, বির্তকিত বিপদগামী নেতার পিছনে বিপুল অঙ্কের অর্থ বিনিয়োগ করে তাদের ফারুক চৌধুরীর পিছনে লেলিয়ে দিয়েছেন।

তাদের টার্গেট একটাই দলের মধ্যে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে বা যেকোনো মুল্য ফারুক চৌধুরীর মনোনয়ন ঠেকানো। কারণ ফারুক চৌধুরী যতদিন এমপি থাকবেন ততোদিন এখানে জামায়াত-বিএনপি মাথা তুলে দাড়াতে পারবে না। আর এই চক্রটি তাদের দলভুক্ত কিছু বিপদগামী সাংবাদিককে দিয়ে এমপি ফারুক চৌধুরীর বিরুদ্ধে একের পর এক মিথ্যা-বানোয়াট ও মনগড়া খবর প্রকাশ করাচ্ছেন।কিন্ত্ত এবার এই জনপদের সাধারণ মানুষ এই চক্রের বিরুদ্ধে বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে। তাই এখানোই সাধু সাবধান। নইলে বিক্ষুব্ধ এসব মানুষের কাছে এরা যেকোনো সময় গণপিটুনি বা গণধাওয়ার শিকার হতে পারেন বলে একাধিক সুত্র নিশ্চিত করেছে।